পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

hhhhhhhhhhhhhh

বিজয়া দশমীর ভাষণে মোহন ভাগবত সুচারু ভাবে সামাজিক ন্যায়ের পক্ষে সরব এবং বামপন্থী মতাদর্শে বিশ্বাসী মানুষদের বিরুদ্ধে জনমত গঠনের চেষ্টা করেছেন। তিনি কালচারাল মার্ক্সিস্ট শব্দবন্ধটি এনেছেন। আগে ছিল আর্বান নক্সাল এবার আরো একটা নতুন শব্দবন্ধ। কিন্তু ভারতীয় রাজনীতিতে তার প্রভাব কী?

Read more


গ্রামের মেয়েদের দৈনন্দিন সমস্যার অন্যতম হলো রান্নার জন্য রোজকার জ্বালানি। এক বিপুল পরিমান জ্বালানির দরকার হয় তিন বেলা রান্নার জন্য। প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ উজ্জ্বলা যোজনায় গ্যাসের কানেকশন তো পেয়েছে কিন্তু সেই গ্যাস ভরানোর সামর্থ্য আর নেই।

Read more


সারাদিন পশ্চিমের জানলার সামনে বসে আছি। নগর কোলাহল আমার পায়ের নিচে, শ্রাবণ শেষের মেঘ মাথার উপরে। এই মেঘ যখন আরও উন্মত্ত, আষাঢ়ের এমন এক দিনে মিলান কুন্দেরা চলে গেলেন। দীর্ঘ অসুস্থতা পেরিয়ে, তিনি যন্ত্রণামুক্ত হলেন। চেকোস্লোভাকিয়ার সবথেকে পরিচিত ঔপন্যাসিক হিসেবে তাঁর আন্তর্জাতিক খ্যাতি – কিন্তু তা বাদ দিয়ে, তিনি আমার খুব আপন জন। তাঁকে আমি মিলান বলে ডাকি, গোপনে। এমনটা কি করে হল? কবে হল?

Read more


সুবর্ণজয়ন্তী সম্মিলনীর দুর্গাপুজো এবার ২৪ বছরে পড়ল, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন, তাঁরই কলমে জানা গেল, কীভাবে দুটি ভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষ, মিলে মিশে দুর্গাপুজো করেন।

Read more


পুজো শেষ হয়েছে। কিন্তু পুজো আসলেই, বিশেষ করে বিশ্বকর্মা পুজো আসলেই কেন যে দাদার কথা মনে পড়ে, কমিউনিষ্ট পার্টি, উদ্বাস্তু কলোনির লড়াই এবং আরো নানান কিছু নিয়ে এই আখ্যান।

Read more

by জয়ন্তী দাশগুপ্ত | 25 October, 2023 | 778 | Tags : Memoir


একজন বয়স্ক লোকের সঙ্গে কীভাবে কথা শুরু করা উচিত? শুধু তো বয়স্ক নয়, একেবারে একশ’ আট। একশ’ আট? না, এতে নাকি অবাক হওয়ার কিছু নেই, এই দ্বীপে একশ’র উপরে আরও অন্তত গোটা দুই-তিন— । আশি-নব্বই তাও অন্তত পাঁচ-সাত। আলাউদ্দীন ইলেকশান করা ছেলে। পঞ্চায়েত-বিধানসভা করে করে সবার বয়স, বাবার নাম, পাড়া— । তবে অমল ত্রিপাঠী একেবারে হায়েস্ট। আর একটা কথা, এই দ্বীপে সবাই কিন্তু মেদিনীপুরের। সেই তেতাল্লিশের মন্বন্তরে বা তার আগে-পরে মেদিনীপুর থেকে আসা।

Read more


'সেদিন আমাকে দেখে মুখ ফিরিয়ে নিল, জানিস?' ফিসফিস করে কথাটা বলে উল্টোদিকে ঘুরে তাকাল অহনা। ঘরের অ্যালার্মের শব্দ। একধাক্কায় দরজা ঠেলে ঢুকল নিবিড়।চোখমুখ থমথমে। ভারী গলায় বলে, ' আচ্ছা, আই কন্ট্যাক্ট না-হলে তুমি কারও সঙ্গে কথা বলো কি? কামন! গসিপ ছেড়ে...' চেঁচিয়ে একটা ধমক দিল অহনা, ' কার সম্পর্কে কথা বলছি, কার সঙ্গে কথা বলছি না জেনেই একটা মন্তব্য করে দাও কেন?’

Read more


সকাল আটটা নাগাদ ফোন। ভোরবেলা কাগজ চলে আসে। সেদিনই অ্যাডটা বেরিয়েছে। ঠাণ্ডা স্বরে লোকটা বলল আপনাদের কত দিনের মধ্যে দরকার? সেদিন বেরোবে জানতাম। আমার তখনও দেখে ওঠা হয়নি। অবাক-ই হলাম। লোকটা আমার সংশয় বুঝল হয়ত। বলল আপনার নম্বরের শেষটা ডবল টু ডবল ফাইভ তো? আজকের কাগজে আপনারা ছোট একটা বিজ্ঞাপণ করেছেন।

Read more


ঝিকঝিক রোদ উঠেছে। গত রাতে গোটা বন জুড়ে বৃষ্টি নেমেছিল। বেশ ঠান্ডা লাগছিল। ননি বেশ কয়েকদিন হল সাজুর বনে এসেছে। সাজুর বনে এই তার প্রথম আসা। শহরে সে হাঁপিয়ে উঠেছিল। তার বন খুব টানে। বন জংগলের ভেতর দিয়ে তার এলোমেলো হাঁটতে ভালো লাগে। আজ সকালের রোদটা দেখে ওর মনটা ভালো হয়ে গেল। বন বাংলোর হাতায় একটি বড় শিমুল গাছ। গাছে এখন শিমুল ফুলের ঢল। লাল ফুলের বাহার যেন বনময় ছড়িয়ে গেছে।

Read more


ঘনঘোর বর্ষা বিদায় নিলে আসে শরৎ। আকাশে পেজা তুলার মতো মেঘ ভেসে বেড়ায়। মাটিতে কাশফুল ফোটে। তারই মাঝে মা উমার আগমন ঘটে আমাদের ঘরে ঘরে। কারও কাছে তিনি দেবী হয়ে আসেন। কারও কাছে মা হয়ে আসেন। তো কারও কাছে আসেন কন্যা হয়ে।

Read more


ভোরের আলো ফোটেনি তখনো। ঘোলাটে অন্ধকার। শোবার ঘরের ঠিক পেছনেই শিরাজ দাদুদের গোয়াল ঘর। ও বাড়ির দাদি ভোর ভোর উঠেই গোয়ালের কাজকম্ম সারছিলেন। আব্বুর মুখে শুনেছি বিবাহের পর আমাদের গ্রামের প্রথম মহিলা, যিনি স্বামীর সাইকেলে চড়ে ইশকুল গিয়ে মাধ্যমিক পাশ করেছেন, তারপর প্রাইমারি ইশকুলে চাকরি। ওই মেয়েবেলায় নারী মুক্তির পথ তখনো মগজে সেঁধোয় নি, তবে বাচ্চা পড়ানো থেকে গরুর লালন পালন, এই বৈচিত্রময় কাজ যে মহিলা করতে পারেন তাঁর প্রতি আমার আলদা একটা সম্ভ্রম তৈরি হয়েছিল বৈকি।

Read more


সাগর দেখে, ঝোড়ো হাওয়া বইছে আর একঝাঁক বাবুই পাখি যাদবপুরের আকাশে চক্কর কেটে উড়ছে তো উড়ছে। কখনও বিশ্ববিদ্যালয়ের আকাশে, কখনও এইট বি বাসস্ট্যাণ্ডের উপর, কখনও সুলেখার দিকে। হঠাৎ খেয়াল করে, পাখিগুলো আর নেই। পরক্ষণে দেখে, সেই পাখির ঝাঁক তাদের গ্রামের বাড়ির পিছনে ক’টা তালগাছের উপরে ঝোড়ো হাওয়ায় আগের মতোই চক্কর দিচ্ছে।

Read more


কে বা কারা ফয়জান আহমেদকে হত্যা করেছিল? কেন করেছিল? তারা কি আদৌ ধরা পড়বে? ফয়জানের বাবা-মা ছেলের হত্যার বিরুদ্ধে ন্যায় বিচার পাওয়ার যে লড়াই করে চলেছেন গুঁড়িয়ে যাওয়া অস্তিত্ব নিয়ে, আদৌ কি তা পাবেন কোনদিন? এক বছর কেটে গেছে, ফয়জানের মৃত্যুর, তার মঝে খবর এসেছে যাদবপুরের স্বপ্নদীপের মৃত্যুর, সেই ঘটনাতেও কেউ শাস্তি পায়নি এখনো...

Read more


তথ্যকে ভয় পাওয়া রাষ্ট্র, সাংবাদিককে ভয় পাওয়াতে চায়। চলছে নানা প্রকার হেনস্তা, পুলিশি হয়রানি। সামনের কঠিন নির্বাচন আসলে ফ্যাসিজম বনাম সাংবাদিকতারও লড়াই। সদ্য, বিজেপি-ঘনিষ্ট প্যানেলকে গোহারান হারিয়ে প্রেসক্লাব অফ ইন্ডিয়ায় কমিটি গঠন করেছেন স্বাধীনচেতা সাংবাদিকরা। কমিটির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পেলেন বর্ষীয়ান সাংবাদিক গৌতম লাহিড়ী।

Read more


ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই মুহূর্তে চলমান প্যালেস্টাইন-ইসরায়েল সংঘাতে তেল আভিভের পাশে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করেছেন। সেই ঘোষণায় গাজা ভূখণ্ডের রক্তাক্ত, নির্যাতিত জনগণের উল্লেখ নেই। ভারতের দীর্ঘদিনের প্যালেস্টাইন নীতির সম্পূর্ণ বিপরীত পথের পথিক এখন নরেন্দ্র মোদী। হামাস অভিযান শুরু হওয়ার পরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই অভিযানকে "সন্ত্রাসী হামলা " বলে অভিহিত করেছেন, তাতে নিহতদের জন্য শোক প্রকাশ করেছেন" এবং "ইসরায়েলের সাথে সংহতি" জানিয়েছেন।আসলে নীতিগতভাবে ভারতীয় জনতা পার্টি ইজরায়েলের ভীষণ কাছাকাছি। অটলবিহারী বাজপেয়ীর নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার তেল আভিভের সঙ্গে সুসম্পর্ক তৈরির উদ্যোগ নেয়।

Read more


একদিকে কুকি-মিজো-জোমি অন্যদিকে মৈতেই সম্প্রদায়। এই দুই পাহাড়ি উপজাতিগোষ্ঠির মধ্যে জাতিবিদ্বেষ, বিজেপি আমলে হিন্দু খৃষ্টান দাঙ্গায় পর্যবসিত। হিন্দু মৈতেইদের আর খৃষ্টান কুকিদের ক্ষেপিয়ে দিয়ে একদিকে হিন্দু আধিপত্য প্রতিষ্ঠা আর কুকি-নাগাদের হাত থেকে চোরাচালানের আধিপত্য ছিনিয়ে নেবার চেষ্টা ব্যকফায়ার করেছে। এক ঢিলে দুই পাখি মারার ছক নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। মণিপুরে তথাকথিত জাতিদাঙ্গা যখন তুঙ্গে নরেন্দ্র মোদী তাঁর স্বভাবসিদ্ধ নির্লিপ্তি ও উদাসীনতার ভান এবং মৌনতা বজায় রেখে ইসরায়েলের হয়ে গলা ফাটাচ্ছেন।

Read more


নিউজ ক্লিক কিন্তু হঠাৎ গজিয়ে ওঠা নিউজ পোর্টাল নয়। এদের যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০০৯ সালে। নিউজ ক্লিক একটি স্বাধীন মিডিয়া হাউস যারা সমালোচনামূলক সাংবাদিকতাকে ঊর্ধ্বে তুলে ধরেছে বরাবর। যাদের অন্যতম বড় কৃতিত্ব হল, গোদি মিডিয়া যখন কৃষক আন্দোলন সম্পর্কে নীরব, তারা তখন ঐ আন্দোলনের প্রায় প্রতিদিনের বিবরণী দেশের মানুষের কাছে পৌঁছে দিয়েছে। এবার বোঝা যাচ্ছে অমিত শাহের দিল্লি পুলিশ, কেন ভোর না হতেই, পৌঁছে গিয়ে নিউজ ক্লিকের দরজায় কড়া নেড়েছিল?

Read more


যাকে যেভাবে থামানো যায়! পুঁজির মালিক বদল, পলিসি বদল করে প্রশ্ন করা সাংবাদিকদের ওপর কোপ৷ এলো বিকল্প মাধ্যম। প্রশ্ন চলল। এরপর? বিকল্প গণমাধ্যমের কর্মীদেরও নাজেহাল করার প্রক্রিয়া শুরু। বাইরে, - জরুরি অবস্হা-বিরোধী বিজেপি-আরএসএসের এই আক্রমণের সামনে সাংবাদিকতার দায় আছে। ঐতিহাসিক দায়। কারণ, গণতন্ত্রের ইতিহাস - সাংবাদিকের, সংবাদমাধ্যমের। কথপোকথন : পরঞ্জয় গুহঠাকুরতা ও সুমিত দাস।

Read more


বাঁ হাতে নাইলনের ঝোলানো ব্যাগ।ব্যাগে সাতটা ছিটেকল, জলের বোতল, ঢাকনিতে সরু সরু গোটা কতক ছিদ্র করা মাঝারি সাইজের প্লাসটিকের কৌটো,বিড়ির প্যাকেট, দেশলাই,আর একখানা গামছা।ডান হাতটা ফাঁকা।মাথার ওপর শেষ ফাল্গুনের চড়বড়ে রোদ নিয়ে নন্দ চলেছে কামডোবের বিলে।নামে কামডোব হলেও আশপাশের গাঁ-গেরামের মানুষের মুখে তা ' কন্ডোবের বিল '।

Read more


বিহারের জাতশুমারি চোখের সামনে এমন তথ্য হাজির করল যে তাকে চেপে রেখে তস্করী করা আর যাচ্ছে না। খুবই স্বাবাভিক ভাবেই আনুপাতিক সংখ্যাভিত্তিতে কর্মসংরক্ষণ কে প্রণয়ন করতেই হবে। আর তার ভিত্তিতেই এবার নির্বাচন করতে হবে, না করলেই অভ্যুথানের সমূহ সম্ভাবনা।

Read more

by সৌমিত্র বসু | 07 October, 2023 | 959 | Tags : Caste Census Census Bihar


ইন্দিরা গান্ধীর 'জরুরি অবস্হা' সমর্থন করে চিঠি দিলেন তৎকালীন সঙ্ঘপ্রধান দেওরাস। আজকের অঘোষিত জরুরি অবস্হায় ও সেদিনের রাজনীতিতে আরএসএসের 'গণতান্ত্রিক-বহুস্বর'-বিরোধী অবস্হান স্পষ্ট। যেখানে, মিডিয়া-নিয়ন্ত্রণ একটি পুরোনো ঐতিহ্য ছাড়া কিছু নয়। প্রতিবছর নিয়ম করে, জরুরি অবস্থার সমালোচনা করলেও, বিজেপি-আরএসএস আসলে ইন্দিরার গান্ধীর সংবাদ মাধ্যমের কণ্ঠরোধের নীতিকেই সমর্থন করে।

Read more


১৯৭২-৮০ সালের সময়কালে আইসিএআর-এর ডিরেক্টর হন ডঃ স্বামীনাথন। দেশের কৃষিচর্চার সর্বময় অধিকর্তা, ১৯৭৯ সালে ভারত সরকারের প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি, তারপর প্ল্যানিং কমিশনে আসছেন তিনি। তিনি সম্প্রতি মারা গিয়েছেন, তাঁর চিন্তা এবং কাজ কি সত্যিই দেশকে খাদ্যতে স্বয়ম্ভর করে তুলেছিল? নাকি আরো কিছু আছে?

Read more


সম্প্রতি বিহার তাঁদের জাতিগত জনগণনার ফলাফল প্রকাশ করেছে, শুরু হয়েছে বিতর্ক। শুধু সাধারণভাবে নয়, জাতিগত জনগণনা প্রতি দশ বছর করলে অনেক সংখ্যাতত্ত্ববিদই সহজেই সমাজের ছোট থেকে বড়ো বিভাজনগুলো এবং তাদের ক্রমবর্ধমান/ক্রমহ্রাসমান হার বার করে ফেলতে পারতেন। ২০২৪ এর নির্ধারিত নির্বাচনের আগে এক বড়ো ইস্যু কায়েমী সরকারের বিরুদ্ধে চলে যাওয়ার প্রভুত সম্ভাবনা। তাই পিছিয়ে দাও, নির্বাচন উৎরে যাক, পরে দেখা যাবে, এটাই উদ্দেশ্য। সবচেয়ে বড়ো প্রশ্নটা উঠতো এই "সাধারণ বর্গের" "অসাধারণ সুযোগ সুবিধা" ভোগ করা নিয়ে।

Read more


দুধ দিলে গোমাতা। না দিলে নো-ভক্তি! ভারতের রাস্তাঘাট ৫০ লাখ ছাড়াগরুর দখলে। সঙ্গে গোশালায় অনাহারে লাগাতার গরুর মৃত্যু। ওদিকে, জন্মহারে বলদের সংখ্যা বেশি। অতএব? ইসকন কি দেবে গাই আর বলদের পরিসংখ্যান? ছবি - কৃষ্ণজিৎ সেনগুপ্ত

Read more


গান্ধীকেও এক সময় দক্ষিণ আফ্রিকাতে পরিচিতি কার্ডের বিরোধিতা করতে হয়েছিল। তিনিও এক কালে ব্রিটিশের ধামাধরা প্রেস বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন। বিজেপি-শাসকরা নিশ্চয়ই এসব খবর জানে। তাই দেশের রাজনীতির সামনে গান্ধীর ব্যক্তিগত ভাবমূর্তিকে মুছে দিতে তারা বদ্ধপরিকর। আজ গান্ধীর জন্মদিনে, তাঁকেই আবার নতুন করে বোঝার চেষ্টা।

Read more


'সাত আর পাঁচে মোট বারো। সেটাকে বারোয়ারী করে বারোভূতের হাতে তুলে না দিয়ে এখন থেকেই প্ল্যানমাফিক একটা সুন্দর বন্দোবস্ত করে ফেলা উচিৎ। কি বলো তোমরা?' মিথিলেশ চায়ের কাপটা হাতে নিয়ে বলে। 'দ্যাখ ছোড়দাভাই তুই কিছু ভুল বলিস নি। কিন্তু বাকিরা কে কি ভাবছে যদি খোলসা করে বলে'.... মিতুন মন্তব্য করে।

Read more