পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

পড়শি যদি আমায় ছুঁতো যম যাতনা সকল যেত দূরে: লালন সাঁই

hhhhhhhhhhhhhh

সম্প্রতি কঙ্গনা রানাউতের গালে কষানো হয়েছে বিরাশি সিক্কার চড়। এও একটা হিংসা বৈকি! তা নিয়ে বাঙালি দুটো গোষ্ঠীতে বিভক্ত হয়ে গিয়েছে – একদল সরাসরি সমর্থন জানিয়েছেন পৈশাচিক উল্লাসে আর আরেকদল নিন্দায় মুখর হয়েছেন। কিন্তু হিংসা দিয়ে কি সমস্ত সমস্যার সমাধান সম্ভব ?

Read more


বাংলায় বামেদের কেন এমন হতাশাজনক ফল হলো, এর থেকে বেরোনোর রাস্তাই বা কী? এই নিয়ে একটি ধারাবাহিক আলোচনা করলেন গৌতম রায়। শেষ পর্ব।

Read more


বাংলায় বামেদের কেন এমন হতাশাজনক ফল হলো, এর থেকে বেরোনোর রাস্তাই বা কী? এই নিয়ে একটি ধারাবাহিক আলোচনা করলেন গৌতম রায়। পঞ্চম পর্ব।

Read more


বাংলায় বামেদের কেন এমন হতাশাজনক ফল হলো, এর থেকে বেরোনোর রাস্তাই বা কী? এই নিয়ে একটি ধারাবাহিক আলোচনা করলেন গৌতম রায়। চতুর্থ পর্ব।

Read more


বাংলায় বামেদের কেন এমন হতাশাজনক ফল হলো, এর থেকে বেরোনোর রাস্তাই বা কী? এই নিয়ে একটি ধারাবাহিক আলোচনা করলেন গৌতম রায়। তৃতীয় পর্ব।

Read more


বাংলায় বামেদের কেন এমন হতাশাজনক ফল হলো, এর থেকে বেরোনোর রাস্তাই বা কী? এই নিয়ে একটি ধারাবাহিক আলোচনা করলেন গৌতম রায়। দ্বিতীয় পর্ব।

Read more


বাংলায় বামেদের কেন এমন হতাশাজনক ফল হলো, এর থেকে বেরোনোর রাস্তাই বা কী? এই নিয়ে একটি ধারাবাহিক আলোচনা করলেন গৌতম রায়। প্রথম পর্ব।

Read more


‘ইম্পিরিয়ালইজম : দ্য হায়েস্ট স্টেজ অব ক্যাপিটালিজম’ নামক বইতে লেনিন দেখান সাম্রাজ্যবাদের আমলে দেখা দেয় বড় বড় একচেটিয়া কারবার ও পুঁজিপতিদের জোট। এই সাম্রাজ্যবাদকে তাই লেনিন বলেন একচেটিয়া পুঁজিবাদ। বিশ্বের কাঁচামালের উৎস, পণ্যোৎপাদন ও বাজারের একটা বৃহৎ অংশ দখল করে নেয় একচেটিয়া মালিকেরা। বুর্জোয়া রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক জীবনে প্রভুত্ব করতে থাকে তারা, সরকারগুলির ওপর নিজেদের অভিপ্রায়কে চাপিয়ে দেয়। আজ ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিনকে আবার পড়া জরুরি।

Read more


চুপিসাড়ে সম্পূর্ণ এক নতুন উপনিবেশবাদ আসতে চলেছে। আসবে তা অবশ্যই। আর সেই সুযোগে দখল নেওয়া হবে মস্তিষ্কের। মানুষের জীবনকে নিয়ন্ত্রণ করার দীর্ঘদিনের ষড়যন্ত্রের অন্তিম সীমানায় পৌঁছে যাবে এই প্রকল্প। সিলিকন ভ্যালির এই প্রকল্পের মূল কাজ হবে মানুষের মনে উপনিবেশ গেড়ে ভাবনার নিয়ন্ত্রণকে মুঠোয় নেওয়া।

Read more


ইতিহাসবিদরা প্রায় সকলেই বলেছেন যে পলাশীর ষড়যন্ত্রের পেছনে যে যে কারণই থাকুক না কেন, বিভিন্ন স্বার্থের দ্বন্দ্ব যে পরিমাণেই ক্রিয়াশীল থাকুক না কেন, হিন্দু মুসলিম প্রশ্ন একেবারেই কোনও বিবেচনাধীন বিষয় ছিল না। পলাশীর ষড়যন্ত্রকে সাম্প্রদায়িক দৃষ্টিকোণে হিন্দু মুসলিম বিরোধ হিসেবে দাগিয়ে দেওয়া একদিকে যেমন ইতিহাসবিকৃতি, তেমনি অন্যদিকে বিজেপির ধর্মের ভিত্তিতে দেশ ও সমাজকে বিভাজনের ধারাবাহিক অপচেষ্টার আর এক চরম নিন্দনীয় প্রয়াস।

Read more


বেশ কয়েক বছর আগে থেকে রামদেবের ক্ষমতার সর্বোচ্চ কেন্দ্রের সঙ্গে যোগাযোগের শুরু। এ সম্পর্কের গভীরতা এবং দৃঢ়তা অনুধাবন করতে পারলে আমাদের মতো প্রায় সমস্ত সাধারণ মানুষের চোখ কপালে ওঠা অস্বাভাবিক কোন ঘটনা হবেনা। ২০১৬ সালের পরে হরিয়ানা সরকার আরাবল্লি পর্বতমালার যে এক-তৃতীয়াংশ সংরক্ষিত অরণ্যের মধ্যে পড়েনা সে অংশ নিরঙ্কুশভাবে তুলে দিয়েছে “বাবা”র হাতে। কিন্তু এবার, বগা ফান্দে পড়েছে। দেশের সর্বোচ্চ আদালতের কাছে, ধমক খাওয়ার ফল কী হয়, তার দিকে এবার সারা দেশ তাকিয়ে থাকবে।

Read more


ইলেকটোরাল বন্ডের যে তথ্য এসবিআই দিয়েছে তাতে এখনো সরাসরি কোন দল কার থেকে কত টাকা নিয়েছে তার প্রমাণ জুটছে না। পরোক্ষ প্রমাণ জুটছে। বিশেষজ্ঞরা সেই সব প্রমাণ নিয়ে মাথা ঘামিয়ে কয়েকটা কথা আমাদের জন্য উদ্ধার করেছেন। আমরা সেই প্রমাণের দিকে যাব না। বরং আমরা একটু ভক্ত, ভগবান আর ধনী-দরিদ্রের সম্পর্কটাকে দেখে নিই। ঐ কৃষ্ণ-সুদামা গল্প দিয়েই।

Read more


খবরটা শুনে চটাদার কাছেই প্রথম ছুটে গেলাম। অনেক কাল ধরেই রাজনীতি নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি, এদিক ওদিক মতামত দিচ্ছি, নানা রকম তর্কবিতর্ক শুনছি, নিজেও যেখানে যা পারি বলছি, কিন্তু সত্যিই বলছি, জীবনে এতটা ধাক্কা কখনও খাইনি। এর থেকে নিজেকে উদ্ধার করতে, এর পেছনকার রহস্য উদ্ঘাটিত করতে ভূভারতে কেউ যদি পারে, সে শুধু চটাদাই পারবেন। প্রচুর অভিজ্ঞতা থেকেই এটা আমার দৃঢ় উপলব্ধি।

Read more


২২ তারিখ কলকাতার বুকে বিশাল ফ্যাসিবিরোধী সম্মেলনের আয়োজন হয়েছে। অনেক অনেক ব্যক্তি মানুষ কিন্তু তাতে সামিল হবেন। তাঁরা ঝান্ডা রাজনীতি নাই করতে পারেন। হয়ত সেটাই তাঁদের ইতিবাচক দিক। যারা রাজনীতির লোক তাদের কাজ এই মানুষগুলোকে এক ছাতার তলায় আনা, ধরে রাখা। অন্যদিকের লোকগুলো কিন্তু একদম সেটাই করে এসেছে। হ্যাঁ, রাষ্ট্রের পূর্ণ মদত তারা পেয়েছে কিন্তু সেটাই সব নয়।

Read more


মারিয়া কাসোলরি তাঁর অসাধারণ গবেষণায় দেখিয়েছেন, কীভাবে সেই ১৯২৫ সালে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ প্রতিষ্ঠিত হবার সময় থেকেই প্রথমে ইতালিতে বেনিতো মুসোলিনি-র ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্র এবং তার একদশকের মধ্যেই জার্মানিতে হিটলার-প্রতিষ্ঠিত জার্মান ফ্যাসিবাদে আপ্লুত ছিলেন ভারতের হিন্দুত্ববাদীরা।

Read more


সঙ্ঘ প্রচারকদের বক্তব্যের নিরিখে আমাদের বর্তমানে বিবেচ্য হচ্ছে বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, সোহহং স্বামী, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, এবং স্বামী বিবেকানন্দের প্রদত্ত গীতা সংক্রান্ত কিছু আলোক কণা। যাঁদের একজনও মার্ক্সবাদী নন এবং অন্তত দুজন—বঙ্কিম ও বিবেকানন্দ—সঙ্ঘ প্রচারে অত্যন্ত ওজন পেয়ে থাকেন। তাছাড়া আমাদের শিবিরে থাকা যুক্তিবাদী ও মার্ক্সবাদী সমালোচকদেরও এই সব কথা জানা এবং চর্চায় আনা দরকার।

Read more


খেয়াল করলে দেখা যাবে যে, আচার্য শংকরের সময়ের (৭০০-৭৩২) পরবর্তীকালে ব্রহ্মবাদ ছাড়া বৈদিক চিন্তার আর কোনো ঘরানাই টিঁকে থাকেনি, অবলুপ্ত হয়েছে। বৌদ্ধ আন্দোলনও প্রবল আক্রমণের মুখে পড়েছে। তাও ক্রমশ অবলুপ্ত হয়েছে। ফলত জ্ঞানবিজ্ঞানের ধারাবাহিকতা যা কিছুর হাত ধরে ভারতে বিকশিত হয়ে হয়েছিল তার সকল গতিপথ রুদ্ধ করে ব্রাহ্মণ্যবাদ বিজয়ী হয়েছে। আজকের বিজেপি তথা আরএসএস এই ধারারই ধারক বাহক। তারাই আবার প্রাচীন ভারতের জ্ঞান-পদ্ধতির নামে বৈদিক জ্ঞান ভাঙিয়ে বাজার গরম করার চেষ্টা চালাচ্ছে এবং আজকের ভারতে জ্ঞান-বিজ্ঞানের যেটুকু অগ্রগতি ঘটেছে তার টুঁটি টিপে মারতে চাইছে।

Read more

by শংকর | 28 December, 2023 | 2 Comment(s) | 721 | Tags : Indian Knowledge System


জিএসটির কিছু সীমাবদ্ধতা ও তার অপপ্রয়োগের ফল জনগণ হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে। অনেক ক্ষেত্রে জিএসটি এখন মধ্যবিত্তের গলায় ফাঁশ। সাধারণ মানুষ যেহেতু উৎপাদিত সামগ্রীর খরচ ও পরিষেবা কর সম্বন্ধে সম্যক অবহিত নয়, তাই তাদের ক্ষেত্রে অসুবিধা হওয়া স্বাভাবিক। এমনকি এই অভিন্ন কর ব্যবস্থা প্রয়ােগের জন্য যে পরিকাঠামাে দরকার তারও একান্ত অভাব। সর্বোপরি সাধারণ জনসাধারণ এ ব্যাপারে এতটাই অজ্ঞ যে সরকার যে পথে তাদের নিয়ে যাবে বা যাচ্ছে তা তাদের মেনে নিতে হচ্ছে—‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’-র ‘খুড়োর কল’কে সার্থকতা দানের জন্য।

Read more


বিজ্ঞান ও বিজ্ঞানচেতনার বিকাশ দাবি করে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের বিস্তৃতি যা ব্রাহ্মণ্যবাদী শাসকরা কোনোদিন মানতে পারেন নি। যজুর্বেদে চিকিৎসকদের ওপর নানা ধরণের প্রায়শ্চিত্তাদির ফরমান জারি হয়েছে। মনু সংহিতায় চিকিৎসকদের কাজকে ঘৃণ্য বলা হয়েছে। চিকিৎসকরা জাত মানে না, ছোঁয়াছুঁয়ি মানে না, সবার গায়ে হাত দিয়ে চিকিৎসা করে, মানুষকে 'অখাদ্য কুখাদ্য' খেতে পরামর্শ দেয়, তাই তাঁদের একঘরে, ত্যজ্য, এবং জরিমানা দিতে বাধ্য করা হয়েছে। আর আজ এই মনুর উত্তরসূরিরাই দেশের ক্ষমতায়।

Read more


রাজনৈতিক হিন্দুত্ববাদী গৈরিক ফ্যাসিবাদীরা অবশ্য চিরকাল এমনই হয়। ইতিহাসের পাতা খুঁড়ে তারা সব থেকে প্রতিক্রিয়াশীল ভাবনাচিন্তাগুলোকেই তুলে নিয়ে আসে বর্তমানের জমিতে। আসলে এরা প্রকৃত অর্থেই অতীত প্রতিক্রিয়ারই পতাকা বয়, তারই ধারাবাহিকতাকে রক্ষা করে। তাই ইন্ডিয়ান নলেজ সিস্টেম (Indian Knowledge System) বা ভারতীয় জ্ঞান পদ্ধতির আদলে বিজেপি এবং সঙ্ঘ পরিবার ঝাঁপিয়ে পড়েছে গোটা উচ্চশিক্ষাকে এই তথাকথিত ভারতীয় জ্ঞান পদ্ধতির ছকে গুছিয়ে তুলতে।

Read more

by শংকর | 15 November, 2023 | 8 Comment(s) | 956 | Tags : Indian Knowledge System UGC NEP 2020


গান্ধীকেও এক সময় দক্ষিণ আফ্রিকাতে পরিচিতি কার্ডের বিরোধিতা করতে হয়েছিল। তিনিও এক কালে ব্রিটিশের ধামাধরা প্রেস বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন। বিজেপি-শাসকরা নিশ্চয়ই এসব খবর জানে। তাই দেশের রাজনীতির সামনে গান্ধীর ব্যক্তিগত ভাবমূর্তিকে মুছে দিতে তারা বদ্ধপরিকর। আজ গান্ধীর জন্মদিনে, তাঁকেই আবার নতুন করে বোঝার চেষ্টা।

Read more


এটা বুঝতে হবে যে, সিপিআইএম নেতৃত্ব যেটা চাইছেন, সেটা হবার নয়। তারা না চাইলেও মমতা গুরুত্ব পাচ্ছে INDIA জোটে এবং শোনা যাচ্ছে, জোটের নামকরণও নাকি মমতারই মস্তিষ্ক প্রসূত। এই এক নাম মাহাত্ম্যের ফলেই মোদীর ঘুম উড়ে গেছে, প্রচণ্ড নার্ভাস দেখাচ্ছে। সে যাই হোক INDIA জোটে মমতার গুরুত্ব যে যথেষ্ট, তা অনস্বীকার্য। সিপিআইএম নেতৃত্বের যত খারাপই লাগুক, এই বাস্তবকে অস্বীকার করার উপায় নেই।

Read more


পাঠকের সরল বিশ্বাসকে কাজে লাগিয়ে এখন ফেক নিউজের রমরমা কারবার চলছে। ক্ষমতার দখলে আর বিরোধী কণ্ঠস্বরকে থামাতে মিথ্যে খবর ছড়ানো শুধু নয়, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে মৌলবাদী শক্তিগুলি উঠে পড়ে লেগেছে, প্রতিদিন হাজার হাজার মিথ্যে সংবাদ ছড়িয়ে মানুষকে বিষাক্ত করে দিচ্ছে । দেশ ও সমাজকে এই ভয়ঙ্কর বিপদ থেকে বাঁচাতে যার সব থেকে বড় দায়িত্ব সেই সরকার নিজেই অভিযুক্ত এখন ফেক নিউজ নিয়ন্ত্রণের নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় সেন্সরশিপ চালুর প্রচেষ্টায়।

Read more


বাবরি মসজিদ ধ্বংসের সময় বা গুজরাট দাঙ্গার সময়, কম টিভি-চ্যানেল থাকলেও ছবি পাওয়া গেছে। গুজরাট দাঙ্গার সময় মোদির গুজরাটে কিন্তু ডবল ইঞ্জিন সরকার। থামানো যায়নি সম্প্রচার। স্পটে দাঁড়িয়ে রিপোর্ট করেছেন সাংবাদিকরা। পথে বাধা এসেছে, তবু সম্প্রচার-সাংবাদিকতা থামেনি।

Read more


এইবারের বাদল অধিবেশনে বেশ কিছু বিল পাশ করিয়ে নিয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকার। আরো কিছু বিল সামনে এনেছে, সেগুলোও দ্রুত পাশ করিয়ে নেওয়া তার উদ্দেশ্য। এর অন্যতম, দেশে প্রচলিত মূল তিনটি ফৌজদারি আইনের বদল। এই বদলের মধ্যে দিয়ে কি নতুন কিছু পাওয়া যাবে?

Read more


আমাদের মতো সাধারণ মানুষ, যাঁরা বিজ্ঞানের দান প্রতিনিয়ত গ্রহণ করছি অথচ নিজেদের চারপাশে তৈরি করে রেখেছি অপবিজ্ঞান তথা কুসংস্কারের পরিমণ্ডল, আর তার ভিত্তি ধর্ম তথা পুরুষতান্ত্রিক আচার, তাঁদের কি কিছু পরিবর্তন হবে এই চন্দ্রযানের সফলতায় ? একদিকে প্রধানমন্ত্রী ইসরোতে দাঁড়িয়ে, বিজ্ঞানের জয় গান করবেন, আর অন্যদিকে চাঁদের যে স্থানে চন্দ্রযান অবতরণ করেছে, সেটিকে 'শিবশক্তি' নামকরণ করবেন, দুটো কি একই সঙ্গে চলতে পারে?

Read more


যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি ছাত্রের মর্মান্তিক ঘটনার প্ররিপ্রেক্ষিতে, আওয়াজ উঠছে, পুরো বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরকে নজরদারি ক্যামেরা দিয়ে মুড়ে দেওয়ার। কিন্তু এই প্রক্রিয়া নিলেই কি র‍্যাগিং সমস্যার সমাধান হবে? নাকি র‍্যাগিং সমস্যাকে সামনে রেখে, মুক্তচিন্তা, মুক্ত পরিসরকেই বন্ধ করতে চাইছেন কেউ কেউ ? বিশ্ববিদ্যালয়কে কি 'চলো নিয়ম মতে' বললেই চালানো সম্ভব? , র‍্যাগিং বন্ধ করা সংক্রান্ত আলোচনা চলে যাবে, পিছনের সারিতে, আর বিশ্ববিদ্যালয়টিকেই জনমানসে হেয় করা হবে। নজরদারি ক্যামেরা তো ছুতো, আসল উদ্দেশ্য কি অন্য কিছু? এখনই কি এই বিষয়ে ভাবার সময় নয়?

Read more


‘অমৃতকাল’এ অকালমৃত্যু খুব কম হবে না। সরকারি ব্যবস্থাপনায় যা উৎকৃষ্ট তার অপমৃত্যু ঘটাতে না পারলে শাসকের পৃষ্ঠপোষক পুঁজিপতিদের মুনাফার সন্ধান দেওয়া যাবে কী করে। উন্নতমানের বাংলা সম্প্রচারকে রুখতে না পারলে হাঁসজারু হিংলা বা বাংরেজি সম্প্রচারের রমরমা চলবে কী করে! তাই এফএম চ্যানেলগুলির অগ্রপথিক আকাশবাণীর এফএম রেইনবোকে মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে, তার স্বাধীন অস্তিত্ব লুপ্ত করে বাংলা ভাষার উপরেই আক্রমণ শানানো হচ্ছে। আমরা আর কত নিশ্চুপ থাকব!

Read more


ইতিহাস নির্মাণের ভার এখন এমন এক দল ও সরকারের কাছে যাদের ইতিহাস নির্মাণের পুরোটাই ‘মিথ’কে কেন্দ্র করে। হিন্দুত্বের পুরো তত্ত্বটাই দাঁড়িয়ে ‘মিথ’ র উপর। ইতিহাসে ‘মিথ’ এর কোন মূল্য নেই। বর্তমানে হিন্দুদের মহিমা গাওয়ার জন্যে এরা অতীতকে একটি যন্ত্রের মতো ব্যবহার করে। তাই এমন কিছু তথ্য এবং বৃত্তান্ত যা এই তৈরি করা অতীত এবং তাদের নির্মিত হিন্দু ভাবমূর্তিকে বিক্ষুব্ধ করবে তা বাদ দিয়ে ফেলা হবে। এই সদ্য সিলেবাস বদল তার একটি টাটকা নমুনা।

Read more


কেউ কি জানতে চায় স্কুলে আর ভালো বা যোগ্য শিক্ষক জোটে না কেন? ইংরেজি মাধ্যমে পড়ালে উপকার হয় কার— ছাত্রের না সমাজের? স্কুল ছেড়ে শিশু কোথায় পালায়, কেন? খাদ্যের অভাবই বা কেন? উত্তর খুঁজেছেন অশোকেন্দু সেনগুপ্ত।

Read more


লেনিনের পরিষ্কার অভিমত ছিল, পত্রপত্রিকায় যদি বিতর্ক ছাপা না হয় তাহলে সেই পত্রিকা একঘেয়ে, শুকনো গোছের কিছু একটা হয়। লেনিন অভিযোগ করেছেন, যেহেতু কামেনেভ একটু ভিন্ন ব্যঞ্জনায় লেখে তাই তোমরা ওকে কেটে ছোট করে দিয়েছ! এভাবে সব কিছুকেই যদি তোমরা কেটেছেঁটে "ইতিবাচক বিলোপবাদ"-এ নামিয়ে আনো তাহলে পত্রিকা একঘেয়ে তো হবেই। ব্যক্তি ও যৌথের সম্পর্ক এবং উচ্চাকাঙ্খার ভুল ব্যাখ্যা প্রসঙ্গে.এই লেখাটি থাকলো।

Read more

by শংকর | 06 February, 2023 | 0 Comment(s) | 891 | Tags : Communist Party Debate Russia China India


কখনও দেখা যায়, এমন একটা বিতর্ককে হঠাৎই হেস্তনেস্ত করার ব্যাপার করে তোলা হল যা নিয়েই তিনি দীর্ঘদিন একসাথে চলছিলেন। এসবই খুব সূক্ষ্মভাবে করা হয়, ধাপে ধাপে উচ্চগ্রামে ওঠা হয়, এমন একটা পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হয় যেখানে সাধারণ মতপার্থক্যগুলিও অসাধারণ হয়ে ওঠে এবং শেষ পর্যন্ত একসাথে চলাফেরাও অসম্ভব হয়ে যায়। আর এসবের ওপরে একটা কঠিন তাত্ত্বিক মতপার্থক্যের চাদর বিছানো থাকে। সর্বকালেই সর্বদেশে অন্যান্য রাজনৈতিক ধারার মত কমিউনিষ্ট আন্দোলনেও এই জিনিস দেখা গেছে। একথা অস্বীকার করার উপায় নেই। কিন্তু কেন এমন হয়?

Read more

by শংকর | 01 February, 2023 | 0 Comment(s) | 1208 | Tags : Communist Party Debate


আজ প্রজাতন্ত্র দিবস, স্কুলের শিশুরাও তো প্রজাই। তাঁদের শিক্ষা নিয়ে কি ভাবছে সরকার? আদৌ কি এই বিষয় নিয়ে চিন্তিত তাঁরা? আজ আবার সরস্বতী পুজোও বটে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে সরস্বতী পুজো হচ্ছে, কিন্তু তাতেও কি বিদ্যার কাজ এগোচ্ছে, না কি শিক্ষকদের দিয়ে নন অ্যাকাদেমিক কাজ করিয়ে নেওয়াটাই এখন সরকারের কাজ?

Read more


সুভাষচন্দ্র বসু ছিলেন কংগ্রেসের মধ্যে জঙ্গি জাতীয়তাবাদের প্রবক্তা। বিদেশি ব্রিটিশ সরকারের প্রতি তাঁর অপরিসীম বিরূপতা ছিল। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদের প্রতি তাঁর ঘৃণা তাঁকে ‘কোনও আপস নয়’-এর অবস্থানে নিয়ে গিয়েছিল। সুভাষচন্দ্রের দেশপ্রেমে কোনও খাদ ছিল না, ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদের নিগড় থেকে দেশমাতৃকার মুক্তি অর্জন তাঁর জীবনের একমাত্র সাধনা হয়ে উঠেছিল।

Read more


গণতন্ত্র ও সামাজিক সাম্য প্রতিষ্ঠার আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য পরিকল্পিত উপায়ে সামাজিক মাধ্যমকে ব্যবহার করা যেতে পারে। কিন্তু মতাদর্শিক প্রচার, জনগণের সমস্যা, জনগণকে সংগঠিত করা এবং সমস্যা সমাধানের বিচার বিশ্লেষণের বাইরে গিয়ে ব্যক্তিগত আলাপচারিতায় ও প্রদর্শনবাদিতায় মগ্ন হয়ে পড়া প্রগতিশীল রাজনৈতিক কর্মীদের কাজ হতে পারে না।

Read more


আমাদের কাছে আরও গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে ধনকুবেরদের খবরদারি ও প্রযুক্তির উল্লম্ফনের ফলে যে সব শ্রমিক/কর্মচারী/প্রযুক্তিবিদ নিত্যনতুন পরিবর্তিত অবস্থায় ‘বাতিল’ হিসাবে গণ্য হচ্ছেন তাঁদের কি হবে? তাঁদের বিকল্প জীবিকা, রুটিরুজি, কাজের কি ব্যবস্থা হবে? বিশ্বজুড়ে মেহনতি মানুষ আজ এই অনিশ্চিত, অমানবিক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে সমাবেশিত হচ্ছেন।

Read more


একদিকে ভারত সরকার বলছেন প্রাকৃতিক কৃষির প্রচারের কথা – সদ্য সদ্য এনেছেন ‘ন্যাশানাল মিশন অন ন্যাচারাল ফার্মিং’ – আবার পাশাপাশি এই জি এম এর বাজনা? জিএম ফসল জৈব কৃষিতে অনৈতিক। যেহেতু আগাছা নাশক দেওয়া হবে, তাই এর সঙ্গে মিশিয়ে চাষ করা যাবেনা কিছুই। গম-সরষে খুবই প্রচলিত মিশ্র ফসল।  এই দ্বিচারিতার উৎসই বা কী আর শেষই বা কোথায়?

Read more


শিক্ষা ব্যবস্থার সামগ্রিক বেসরকারিকরণের ফলে শিক্ষা ব্যবসায়ীতে শিক্ষা জগত ভরে গেছে। ওই বন্দোবস্তে সঙ্গত করেছে কেন্দ্র রাজ্য সমস্ত ধরণের সরকারগুলি। যাঁরা সরকারি প্রতিষ্ঠানের বিষয়ে বিরূপ মন্তব্য করেন, কেবল সরকারি স্তরে দুর্নীতি নিয়ে মাথা ঘামান, তাঁরা বেসরকারি বা ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানগুলির অন্তর্নিহিত দুর্নীতিগুলিকে দেখতে পান না, কারণ সরকারি কাজে ঘোটালা বা ব্যাঙ্কের অর্থ তছরূপ জাতীয় কাজ না করলে ওইসব দুর্নীতি দুর্নীতি নিরোধক আইনের আওতায় আসে না। কিন্তু ওই ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যেই রয়েছে দুর্নীতির উৎস, পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষক নিয়োগের দুর্নীতিও কোনো ব্যতিক্রম নয়।

Read more


ধরুন, PM Cares Fund ঠিক কিভাবে প্রধানমন্ত্রীর নাম ছবি ঠিকানা ব্যবহার করেও সরকারী ট্রাস্ট নয় তার ব্যাখা খোদ ঐ মামলার বিচারপতি নিজে এসে আমাদের সবাইকে জানাচ্ছেন! ভাবুন তো কেমন হবে!

Read more


বাঙালি আন্তর্জাতিক হবে । পুঁজি এলে অনেক বেকার ছেলে কাজ পাবে । পাড়ার ক্লাবে মানুষের ঢল নামবে । আমরা চারদিন সব ভুলে সেলিব্রেট করব আধুনিক দুর্গাপুজো। অথচ অনেককিছু করা যে বাকি ছিল । সে হিসেবের খাতাটা সবার মত এই ক্লাবগুলিও হারিয়ে ফেলল । এই ভাবেই বাঙালী দুর্গাপুজো পালন করতে শিখছে ইদানীং

Read more


সুপ্রিম কোর্টের আদেশ শিরোধার্য করেও একটা খটকা থেকেই যায়, ১০০০ কোটি টাকার সম্পত্তি যা ধ্বংস করতে ২০ কোটি টাকার বিস্ফোরক লাগে, সেই সম্পত্তি কি সরকার অধিগ্রহণ করে কোন বৃহত্তর জনস্বার্থে ব্যবহার করতে পারতো না! অতীতে বে আইনী নির্মাণ অধিগ্রহণ করার নজির তো কম নেই।

Read more


আমাদের অজানা নয় যে ভীমা-কোঁরেগাও মামলায় যখন একের পর এক কবি,সাহিত্যিক,সাংবাদিক, অধিকার কর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে ইউএপিএ আইনে তখন সিপিএম ঘনিষ্ঠ ও পার্টি সদস্য বুদ্ধিজীবিরা এই অন্যায় রুখতে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন। কিন্তু নিজেদের শাসনে তারা শুধু এই কুখ্যাত আইনের প্রয়োগই করছেন না,একই সঙ্গে চরম প্রতিহিংসা পরায়ণ,প্রতিক্রিয়াশীল অবস্থান নিচ্ছেন যার সাম্প্রতিক উদাহরণ হল কেরলের রূপেশ মামলা।

Read more


বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হঠাৎ বললেন, সব আরএসএস নাকি খারাপ নয়, কিছু ভালো আরএসএস ও আছে, কিন্তু এই আরএসএস যে জঙ্গী প্রশিক্ষণ শিবির করছে তা কি তিনি জানেন ?

Read more

by সুমিতা দাস | 03 September, 2022 | 0 Comment(s) | 1263 | Tags : RSS Terrorist Camp BJP


'এ হোলি কন্সপিরেসি' সাম্প্রদায়িকতা নিয়ে সহজপাচ্য 'যুদ্ধু যুদ্ধু' খেলা নয়। সে প্রবেশ করতে চেয়েছে সাম্প্রদায়িকতার শক্তি সংগ্রহের সেই বিবরে, যেখানে বিপদের বিষ। যেখানে সংখ্যাগুরুর ধর্মান্ধ সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে না দাঁড়িয়ে উল্টে নিজের বিচ্ছিন্ন ছোট ছোট মৌলবাদ দিয়ে সেই শক্তিকে সার-জল জুগিয়ে চলেছে সংখ্যালঘুর সাম্প্রদায়িকতা।

Read more


আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি ও জাতীয় রাজনীতির মধ্যে সমন্বয়ের ক্ষেত্রে কমিউনিস্ট পার্টির ৪২ এ কিছু দুর্বলতা থাকলেও বাংলার অন্যান্য বাম শক্তি এই আন্দোলনে সর্বাত্মক শক্তি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। দক্ষিণপন্থী শিবির ও প্রচার মাধ্যম গোটা স্বাধীনতা সংগ্রামে কমিউনিস্টদের অসামান্য ভূমিকা বিষয়ে প্রায় নিশ্চুপ থেকে কেবল ৪২ এর অবস্থানকেই যেমন দাগিয়ে দেবার চেষ্টা করে, তেমনি এই ৪২ এর আন্দোলনেই কমিউনিস্ট পার্টি ছাড়া অন্যান্য বামেদের সক্রিয় ভূমিকাকে আড়ালে রাখে।ভারত ছাড়ো আন্দোলনে বাংলার বামপন্থীদের ভূমিকা নিয়ে একটি আলোচনা।

Read more


রোদ্দুর রায়ের গ্রেপ্তারীর পর একাধিক সামাজিক প্ল্যাটফর্মে তাকে পাগল, মানসিক বিকারগ্রস্ত- অসুস্থ হিসাবে প্রতিপন্ন করার চেষ্টা চলছে লাগাতার। বিষয়টি নিয়ে কিছু কথোপকথন দাবি করে। তাই এই নিবন্ধটি এই সময়ে শুধু নয়, নানান সময়েই প্রাসঙ্গিক।

Read more


বাবরি মসজিদের পরে ইদানীং আবার কাশী মথুরা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। জ্ঞ্যানব্যাপী মসজিদে নাকি শিবলিঙ্গ পাওয়া গেছে, এবং সেই মসজিদ নাকি মন্দির ধ্বংস করে তৈরী হয়েছিল। কিন্তু ইতিহাস কি বলে, শাসকের ধর্মীয় সহনশীলতা ও ধর্মীয়স্থান ধ্বংসের উদাহরণ কি শুধু একমুখী?

Read more


প্রধান রাজনৈতিক দলগুলি নির্বাচনের আগে ক্ষমতা জাহির করার প্রতিযোগিতায় নামে। পেশি শক্তি ও অর্থ শক্তির আস্ফালন— টাকা দিয়ে ভোটারকে প্রভাবিত করার মতো অনৈতিক কাজও এখন বেশ স্বাভাবিক। আর সরকার গড়ার জন্য বিপক্ষের বিধায়ক বা সাংসদ কেনার জন্য বিপুল অর্থ। তার যোগান আসে নির্বাচনী বন্ডের মতো একটা কালো টাকা সাদা করার রহস্য ঘোরা প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে।

Read more


বালিগঞ্জে দ্বিতীয় হিসেবে দৌড় শেষ করলেও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যর ওয়ার্ডে জিতেছেন সিপিআই(এম) প্রার্থী সায়রা শাহ হালিম। সেই দিক থেকে দেখলে বামদের ক্রম রক্তক্ষরণের মধ্যে সিপিআইএমকে এই ফল অক্সিজেন জোগাবে। কিন্তু এটা কি বামেদের পুনরুত্থান ?

Read more


যেখানে হরিদ্বারের ধর্মসংসদ থেকে ডাক আসছে হিন্দুদের প্রতি, মুসলমানদের বিরুদ্ধে সরাসরি অস্ত্র তুলে নেওয়ার, ঠিক সেই সময়েই অগ্নিহোত্রী সংখ্যাগুরু জনতার ইউটোপিয়ান ফ্যান্টাসিকে, তাদের স্বপ্নের অন্তর্লীন স্বপ্নকে সিনেমার ভাষায় জীবন্ত করে তুলছেন। যে দেশে 'লাভ জিহাদ'-এর ভুয়ো সংজ্ঞাকে ক্রমশ আইনি স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে, সেখানে এই সিনেমায় উঠে আসা হিন্দুরমণীর আর্তনাদের 'ফলস ট্রুথ' হিন্দু-অস্মিতাকে রক্ষা করার চিন্তাকেই ক্রমশ জনমানসে লালিত করতে সাহায্য করবে।

Read more


এটা স্পষ্ট তৃণমূল কংগ্রেসের নিজস্ব কোন বিকল্প নীতি বা কর্মসূচী নেই। প্রধানতঃ কংগ্রেসের পথই তাদের পথ। সাংগঠনিক পদ্ধতিতে চরম ব্যক্তিকেন্দ্রিক এক এবং দল চালানোর অর্থনৈতিক উৎসও প্রধানতঃ যে দলের পরিচ্ছন্ন নয় সেই দল জনস্বার্থে কোন কাজ করতে পারে না। ক্ষমতায় থাকার জন্য যতই বামপন্থী ধ্যান ধারণা বা বামপন্থী মুখোশ পরুক না কেন নীতি ও কর্মসূচীরও পথ চলাতে তারা আদ্যোপান্ত দক্ষিণপন্থার ধারক ও বাহক।

Read more


ব্রিটিশ আমলের পুলিশ কমিশন (১৮৬০) মনে করত “পুলিশকে রাজনৈতিক ভাবে ব্যবহার করা উচিত।“ স্বাধীনতা উত্তর যুগে সে প্রথার অবসান হবে এমনই প্রতিশ্রুতি ছিল। সে প্রতিশ্রুতি পালিত তো হয়ইনি যুগে যুগে পুলিশ রাজনৈতিক ভাবে আরও বেশি বেশি করে ব্যবহৃত হচ্ছে। এখন তো সামরিক বাহিনীকেও রাজনৈতিক ভাবে ব্যবহারের অপচেষ্টা চলছে।

Read more


আন্দোলনের অন্যতম প্রধান দূর্বলতা হচ্ছে এতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষিদের যোগদান সীমিত। এই সত্যিটা যোগেন্দ্র যাদবের মতো নেতারা প্রকাশ্যে আনতে দ্বিধা বোধ করেন। তিনটি আইন লাগু হলে ছোট চাষিও একই ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। কৃষিক্ষেত্র যদি কর্পোরেটের লীলাক্ষেত্র হয়ে যায় তাহলে জমির মালিক ও ক্ষেতমজুরের পরম্পরাগত সম্পর্ক (যে সম্পর্কের মধ্যে শোষণ বদান্যতার রূপ নিয়ে থাকে) ছিন্ন হয়ে যাবে।

Read more


রাতের অন্ধকারে বাড়িতে ঢুকে প্রতিবাদ-বান্ধব ছাত্র আনিসকে খুন করার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে উঠলেও সরকারি নিস্পৃহতা দুর্নিরীক্ষ্য থাকেনি। স্বভাবতই আনিসের হত্যা নিয়ে অনেক চর্চাই হচ্ছে এবং হবে, দাবি এবং গরম গরম কথার অনেক প্রদর্শনীই কার্যকরী থাকবে কিছুদিন। তারপর সবই থিতিয়ে যাবে। এটাই চলতে থাকে ধারাবাহিকতার নিয়ম মেনে।

Read more


স্কুলকলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রেখে আমরা আমাদের আসল পুঁজি নষ্ট করে ফেলছি না তো? সারা পৃথিবীর সবথেকে বেশী শিক্ষিত কর্মক্ষম যুবকের ঠিকানা কিন্তু আমাদের এই দেশ এবং সারা পৃথিবীর শিক্ষাপ্রযুক্তির নানাবিভাগে আমাদের দেশের ছেলেমেয়েরাই কিন্তু সর্বাগ্রে। সারা পৃথিবীতে যখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার চেষ্টা শুরু হয়েছে অন্তত এক বছর আগে, আমরা কিন্তু ভবিষ্যতের লড়াইতে পিছিয়ে যেতে শুরু করেছি। শিশুদের মানসিক বয়স এই ঘরবন্ধ পরিস্থিতিতে পিছিয়ে যাচ্ছে, তাদের শেখার এবং মনে ধারণ করার ক্ষমতা কমছে।

Read more


বাংলাভাষায় “অগ্নীশ্বর” কাহিনী নিয়ে একটি জনপ্রিয় সিনেমা নির্মিত হয়েছে। যেমন হয়েছিল তপন সিনহার “এক ডাক্তার কী মওত”। ডাঃ সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের জীবন নিয়ে আধারিত চলচ্চিত্র। কিন্তু ঐ পর্যন্তই। শেষ পর্যন্ত সকলি বিনোদন ভেল। কিন্তু পৃথিবী তো থামেনা। চলতেই থাকে। ঘুরতেই থাকে। ইপ্পার সি মুভে। তবুও পৃথিবী ঘোরে।

Read more


বিজ্ঞানের ইতিহাসে বঞ্চনার তালিকা দীর্ঘ। কিন্তু বিজ্ঞানীরাও মানুষই। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে কেউ হাল ছাড়েন কেউ ছাড়েন না। কিন্তু একটা জিনিস লক্ষ্যণীয়। যে দু জন বিজ্ঞানীর কথা এখানে বলা হলো, তাঁদের আবিষ্কার ঈশ্বরকে চ্যালেঞ্জ করে বসেছিল। রাষ্ট্রকে চ্যালেঞ্জ করেছিল। কিন্তু তাঁরা চেষ্টা করেছিলেন বিজ্ঞানকে অস্ত্র করে সাধারণ মানুষের জীবনকে একটু সহনীয় করে তুলতে। বিজ্ঞান-বাণিজ্য নয় বিজ্ঞানকে মানুষের আশীর্বাদ করে তুলতেই প্রয়াসী হয়েছিলেন তাঁরা।

Read more


প্রাথমিক স্তরে যে জিনিসগুলো পড়ানো হয় তা বাড়িতে প্রাইভেট টিউটর রেখে আরো ভালোভাবে শেখানো সম্ভব। কিন্তু যেটা বাড়িতে সামাজিকীকরণ বা সমাজের উপযুক্ত করে গড়ে তোলাটা বড্ড কঠিন কাজ। একটা বাচ্চা ইস্কুলে এসে আর দশটা বাচ্চার সাথে মেশে। বাকি বাচ্চারা তার একই আর্থিক, সামাজিক বা সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল থেকে উঠে আসে না। তারা একসাথে খেলা করে, বেঞ্চে বসে, টিফিন ভাগ করে খায়। বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। বন্ধুর জন্য কান ধরে দাঁড়াতেও দ্বিধা বোধ করে না। এই সবের মাধ্যমে বাচ্চারা শেখে কিভাবে সবার সাথে জীবনটা ভাগ করে নিতে হয়। তাই প্রাথমিক স্তরের ইস্কুল আগে খোলা জরুরী।

Read more


শিক্ষাক্ষেত্রে বেসরকারী উদ্যোগ আমাদের দেশে নতুন নয়। কিন্তু ‘বাইজু’ জাতীয় কোম্পানি গুলো যা করছে তা মাফিয়াতন্ত্র কায়েম করার সামিল। বাবা মায়েরা অভিযোগ করছেন যে খদ্দের যোগাড় করার জন্য ওরা ছোট শিশুদের এমন প্রশ্ন করছে যার উত্তর বেশিরভাগ শিশুরই দিতে পারার কথা নয়, আর যেই তারা উত্তর দিতে পারছেনা অমনি অলীক স্বপ্ন দেখা বাবা মায়েদের মনে ভয়ের সৃষ্টি করে প্ররোচিত করা হচ্ছে যাতে তারা ঐ অলীক স্বপ্ন সফল করতে এই কোম্পানির লক্ষ টাকার পাঠক্রমে শিশুটিকে ভর্তি করেন।

Read more


আবার একটা সংশয় তৈরি হয়েছে, করোনার আরও একটি নতুন রূপ 'ওমিক্রন' এসে যাওয়ার কারণে। অনেক বিশেষজ্ঞ বলছেন এই রূপটি হয়তো আরও ভয়াবহ, আবার নাও হতে পারে। যদিও এই ভয়াবহ বাক্যবন্ধটি শুনতে শুনতে পৃথিবীর সব কৃষ্টিশীল জ্ঞানচর্চার কেন্দ্র গুলি আজ বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম! বিদ্যালয়গুলি তার অন্যতম নিদর্শন।

Read more


তুবড়ি দিয়ে কি ঘর আলোকিত করা যায়? এরকম কোনও বোকা চেষ্টায় আমি আপনি সময়পাত করছি না তো! দেউচা পচামি সংক্রান্ত একটি আলোচনা করলেন কারিগর শমিক সাহা

Read more


সাভারকারের জাতি বিদ্বেষী তত্ত্বের ভিত্তিতে তৈরি হিন্দু রাষ্ট্রের ধারণা যে আদতে একটি কাল্পনিক, অবাস্তব রাষ্ট্র সে সম্পর্কে যত তাড়াতাড়ি বোধোদয় ঘটে ততই মঙ্গল। হিন্দ স্বরাজের গান্ধীর সঙ্গে হিন্দু রাষ্ট্রের সাভারকারকে যুক্ত করার অপচেষ্টা চলছে। যে গান্ধীকে হত্যা করল আরএসএস, তাদের মতবাদের কারিগরকে গান্ধীর সঙ্গে জুড়ে দিলেই ইতিহাস বদলে দেওয়া যাবে না।

Read more


মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন, স্কুল খোলা হবে, নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী অবধি। কিন্তু এতোদিন কিভাবে চলেছে? কি বলছেন একজন সরকারি স্কুলের শিক্ষক? আসুন একটু দেখে নেওয়া যাক, কি চাইছেন বহু শিক্ষক? এই যে সমাজের এক অংশের মানুষ ভাবছেন, শিক্ষকেরা বসে বসে মাইনে নিচ্ছেন, তাঁরা কি তাই চাইছেন?

Read more


প্রতি বছর এই যে নিয়ম করে মা আসেন, তার সঙ্গে আরও কি কি আসে, এবছর আর নতুন কি আসবে? তাহলে কি এবার মা এসে প্রমাণ করে ছেড়েছে, করোনা নিয়ে সরকারি বিধিফিধি যা কিছু দিল্লীশ্বর এবং রাজ্যেশ্বরী জারি করে চলেছেন—মাস্ক, দূরী, সব একেবারে ফালতু। না মানলে সামান্য তমও ক্ষতি নেই। আধাবাংলা মায়ের এই-ই একমাত্র সদর্থক অবদান!

Read more


জুলাই(২০২১) এর শেষদিকে পৃথিবীর ১৭৫ টি দেশে স্কুল পুরোমাত্রায় খুলে গেছে। ফ্রান্স,পর্তুগাল, ডেনমার্ক, জাপান সহ পৃথিবীর বিভিন্ন উন্নত দেশে অতিমারীর সময় (২০২০) স্কুল বিশেষ করে প্রাথমিক স্কুল হয় পুরো খোলা থেকেছে অথবা সামান্য দিনের জন্য বন্ধ থেকেছে। পৃথিবীতে ভারতই একমাত্র দেশ যেখানে কোভিড অতিমারীর কারণে সবচেয়ে বেশি দিন স্কুল বন্ধ রয়েছে। ইউনেস্কোর খতিয়ান অনুসারে একমাস স্কুল বন্ধ থাকার অর্থ দু মাসের পড়াশোনা ক্ষতি।

Read more


প্রায় দেড় বছর হয়ে গেল স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ। সেই সংকটের শুরুর মরশুমে ডিজিটাল উদ্দীপনায় কেউ কেউ মেতেছিলেন রাশি রাশি অনলাইন ওয়েবিনার আয়োজনে। সেই উৎসাহে সম্ভবত কোনো ঘাটতি ছিল না। কিন্তু প্রাথমিক পর্যায়ে যে বিপুল পরিমাণ ক্ষতি হল ছাত্র সমাজের, সেটি চাপা পরে যেতে থাকে এই ডিজিটাল উদ্দীপনায় লিখলেন, সম্রাট সেনগুপ্ত

Read more


এখন ছোটদের পাশাপাশি শিক্ষকদের মুখেও হাসি ফুটেছে। ভয়,অনিশ্চয়তা তো রয়েছেই। কারণ এখনও বিপুল পরিমাণ শিশুদের টিকাকরণ হয়নি।আপাতত স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা বিধি মেনে দৈহিক দূরত্ব এবং মুখোশ-ই ভরসা। হয়তো জীবনের বহু প্রতিকূলতার মুখোমুখি হওয়ার হাতেকলমে শিক্ষা এখন থেকে হয়ে গেল ছোটদের। আমেরিকার স্কুল খুলেছে, তারই প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা লিখলেন মৌমন মিত্র

Read more


প্রায় দেড় বছর স্কুল বন্ধ, ডিজিটাল ডিভাইড কি করে, ছোট ছোট বাচ্চাদের পড়াশুনা বন্ধ করেছে, তা নিয়ে প্রচুর লেখা হয়েছে, এবার একজন সুবিধাভোগী অভিভাবক কি ভাবছেন, তাঁদের সন্তানদের পড়াশুনা নিয়ে, কেন তাঁদের সন্তানদের শিক্ষার জন্যেও স্কুল খোলা জরুরী, এই নিয়ে আলোচনা করাও জরুরী এবং তা অতি দ্রুত, তা মিয়েই কিছু কথা লিখলেন শুভ্রদীপ ঘোষ

Read more


১৯৪২ খ্রিস্টাব্দের ৮ অগাস্ট কংগ্রেস যখন ভারত ছাড়ো আন্দোলনের আহ্বান জানায় এবং তার প্রেক্ষিতে ৯ অগাস্ট থেকে এক বিশাল গণআন্দোলনের বিস্ফোরণ ঘটে, তখন সেই আন্দোলন দমন করতে ব্রিটিশ শাসকেরা একদিকে যেমন নির্মম দমন পীড়ন নামিয়ে এনেছিলেন, তেমনই অন্যদিকে এক সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিলেন। এইসময় কংগ্রেস নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়, প্রাদেশিক সরকার ভেঙে দেওয়া হয়। সারা ভারত এক বিশাল জেলখানায় পরিণত হয়েছিল সেসময়। ব্রিটিশ সরকারের দমন পীড়নের শিকার হয়ে হাজার হাজার আন্দোলনকারী নিহত এবং কারাবন্দি হয়েছিলেন। এইসময় হিন্দু মহাসভা এবং আরএসএস-এর ‘জাতীয়তাবাদী সংগঠনগুলি’ মুসলিম লিগের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে এই ভারত ছাড়ো আন্দোলনের বিরোধিতায় নেমে পড়ে বিদেশি ব্রিটিশ শাসকদের এই আন্দোলন দমনে মদত যুগিয়েছিল।

Read more


নারীর 'স্বাধীনতার লড়াই' তাই চিরকালই দ্বিবিধ। ঘরের আর বাইরের। স্বাধীনতার ৭৫ তম বছরে এ লেখা লিখতে বসলাম বটে, কিন্তু রাজনৈতিক ভাবে রাষ্ট্রের স্বাধীনতা নারীর স্বাধীনতার একটি একক হতে পারে বড়জোর। 'রাজনৈতিক' কথাটিও নারীবাদের আওতায় এলে অর্থের সম্প্রসারণ ঘটায়, কারণ সেখানে 'ব্যক্তিগতও রাজনৈতিক'। অতএব খাতায় কলমে ভারত রাষ্ট্রের স্বাধীনতা যে নারীর স্বাধীনতার সমার্থক নয়, তা বলাই বাহুল্য। ঠিক যেমন খাতায় কলমে নানা আইনি বা সাংবিধানিক অধিকার থাকলেই নারীর অধিকার নিশ্চিত হয় না৷

Read more


সমাজ মাধ্যম অনেকটা সেই শুঁড়িখানার মত যেখানে অনেকের কথা একসঙ্গে শোনা যায় উচ্চগ্রামে, কিন্তু সেখান থেকে কোনও অর্থ খুঁজে পাওয়া ভার। এই কোলাহলই "ফোমো"-র সবচেয়ে বড় অভিশাপ। যখন সবাই কথা বলছেন কোনও কথা না শুনেই, শুনছেনও না শুনেই, তখন আর কোনও কথারই দাম থাকে না। তখন যে কোনও শোক, ক্রোধ, হতাশা শেষ অবধি এক প্রতিযোগিতামূলক উৎসব হয়ে রয়ে যায়। অর্থহীনতার উৎসব। কিন্তু কেন এমনটা হয়? মনস্তাত্ত্বিকরা বলছেন এর জন্য দায়ী বিভ্রান্তি। না সত্য না মিথ্যার বিভ্রান্তি। আর এইখানে প্রবেশ করবে সমাজ মাধ্যমের দৌলতে আমাদের শব্দভান্ডারের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ শব্দ জোহনারিজম। যার অর্থ হল একটা সহজ সরল সত্যকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে মানুষের সামনে ঘুরিয়ে পেঁচিয়ে উপস্থাপন করা। এই ফোমো আর জোহনারিজম নিয়ে লিখলেন শোভনলাল চক্রবর্তী

Read more


এমনিতেই কোভিড পরিস্থিতিতে বহু মানুষ চাকরি খুইয়েছেন, বহু মানুষ অর্ধেক মাইনেতে কাজ করছেন। এই সব মানুষের জন্য আজকের বাজারের প্রায় প্রতিটি জিনিসের দাম, বিশেষ করে ভোজ্য তেল এবং রান্নার গ্যাসের দাম ক্রমশ হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে। সরকার বলছেন সব কিছুর দাম বাড়বে, কারণ বিশ্বের বাজারে এই সব পণ্যের দাম বাড়ছে, বিশেষ করে তেলের বাজার এখন অনিয়ন্ত্রিত। প্রথমেই বলে রাখা দরকার এই যুক্তি একটি ডাহা মিথ্যা। তেলের ব্যবহারের বৃদ্ধি যে অর্থনীতি ও আয়ের সঙ্গে সমানুপাতিক তা বোঝার জন্য অর্থনীতিবিদ হওয়ার প্রয়োজন হয় না। সরকার বলছেন মোটা টাকা দিয়ে তেল আমদানি করতে হচ্ছে কারণ দেশে নাকি তেলের চাহিদা বেড়েছে। কিন্তু বাস্তব চিত্র হল এই যে মোদি জমানায় ভারতে অপরিশোধিত তেলের ব্যবহার কমেছে।

Read more


নরেন্দ্র মোদি সাহেব ভারতের প্রধানমন্ত্রী হলেন। এক বছর যেতে না যেতেই এক বছরের মাথায় তিনি স্লোগান দিলেন, “মেক ইন ইন্ডিয়া”!। শ্লোগানটি রূপায়ণের জন্য তিনি এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ সুহৃদ, শ্রী অনিল আম্বানি মহাশয় মার্চ ৫, ২০১৫ এক “ব্রেন-স্টর্মিং” অধিবেশনে মিলিত হয়ে কীভাবে “মেক-ইন-ইন্ডিয়া” পরিচালিত করা যায়, তা নিয়ে মাথা খুঁড়তে বসেন। জ্যোতিষ মতে তখন আম্বানির শনির দশা – সিবিআই আম্বানির কোম্পানির বিরুদ্ধে টুজি স্পেক্ট্রাম কেলেঙ্কারিতে সরকারি চাকুরেদের ঘুষ দিয়ে অন্যায্য সুবিধা আদায়ের অভিযোগের তদন্ত চালাচ্ছে এবং প্রাথমিক তদন্তে এই অভিযোগের সপক্ষে প্রমাণও মিলেছে, আম্বানির কোম্পানিও ঋণ-খেলাপি মামলায় জর্জরিত।

Read more


২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে ভারত সরকার সড়ক উন্নয়ন পরিকল্পনার অঙ্গ হিসেবে “টট” মডেল গ্রহণ করে। এই “টট” কথাটি আসলে এসেছে ইউরোপ থেকে, যেখানে এই মডেল চলছে দ্বিতীয়-বিশ্বযুদ্ধ-পরবর্তী “পুনর্গঠন”-এর পর থেকেই। মার্কিন দেশের দেওয়া “পুনর্গঠন”-এর ঋণ শোধের এটি একটি পরিচিত পদ্ধতি হয়ে ওঠে। এই মডেল অনুসারে, মহাসড়ক বা হাইওয়ে-র যানবাহন চলাচলের ওপর ট্যাক্স বসিয়ে, সেই টাকায় রাস্তা রক্ষণাবেক্ষণ সহ অন্যান্য খরচা চালানোসহ রাস্তা তৈরির খরচা তোলা হবে। সেই খরচা উঠে গেলে এই ট্যাক্সও আর নেওয়া হবে না।

Read more


আধার, পরিচয়পত্র, আরোগ্য সেতু বা কো উইনের মতো মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের ফাঁদে ফেলে সরকার মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। আসলে তাদের কাছে প্রতিষেধক রয়েছে সীমিত এবং সরকার বেসরকারি ক্ষেত্রকে প্রাধান্য দিয়ে চলেছে। সেটাকে ভুলিয়ে দেওয়ার জন্যই এত সব আয়োজন। যখন যে কোনও ইচ্ছুক ব্যক্তিকে যে কোনও জায়গায় প্রতিষেধক দেওয়াটা জরুরী, তখন তাঁরা নানান টালবাহানা করছে। যখন জরুরী পালস পোলিওর মতো, প্রতি বাড়ি বাড়ি গিয়ে এই প্রতিষেধক দেওয়া তখন সরকার কেন এই তথ্য চাইছে, বা এই সব নিয়ে প্রতিদিন নিত্য নতুন নিয়ম চালু করছে, তা কি ভেবে দেখার সময় হয়নি?

Read more


দোদুল্যমান, কনফিউজড ভদ্রলোক বাঙালি ক্রমশ ফিরে পেয়েছে তার আত্মবিশ্বাস, বাঁশি শুনে সমুদ্রে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেনি। এই অসমসাহসী মানুষের দল প্রমাণ করে দিয়েছেন সাহস আর সততা থাকলে শেষ পর্যন্ত দুর্দম শত্রুকেও নাস্তানাবুদ করা যায়।

Read more


তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোটের ৫১% মহিলাদের। আর পশ্চিমবঙ্গের মহিলা ভোটারের ৪৭% তাদের ভোট দিয়েছেন, যেখানে বিজেপিকে ৩৭%। ২০১৬ সালের বিধান সভা ভোটে নাকি তাদের প্রাপ্ত ভোটের ৫২% ছিল মহিলা ভোট, আর তখন নাকি পশ্চিমবঙ্গের ৪৮% মহিলা ভোটার তাঁদের ভোট দেন।

Read more


২০১৪ থেকে “স্বদেশিয়ানা” ও “হিন্দুত্ব”-র নামে যে সংগঠিত লুঠপাট চলছে, তাকে বেপর্দা করা সহজ নয়। তথ্য গোপন, ভুল তথ্য দেওয়া, তথ্য জানতে চাইলে হত্যা করা— এই বেপর্দা করার কাজটি দিনে দিনে কঠিন হয়ে পড়ছে, আর পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দোসর পুঁজির রমরমা!

Read more


শুধু লকডাউন নয়, করোনাও এসে অনেকগুলো জিনিস আঙুল তুলে দেখিয়ে দিচ্ছে। আমাদের দেশে এবং রাজ্যে স্বাস্থ্যব্যবস্থার অবস্থা আর কত সহজে একটা আতঙ্কের চাষ করা যায়, সেসব তো বটেই, সে নিয়ে ক্রমাগত বলে যাচ্ছি। কিন্তু এসব বাদেও কতকগুলো জিনিস চোখে পড়ছে। রোগটা শহুরে বা আর্বান। যে জায়গাগুলোতে গতবছরে এবং এবছরেও রোগের বিস্তার ঘটেছে, তীব্রতা, সবই শহরকে ঘিরে। যে রাজ্যে যত বেশি নগরায়ণ ঘটেছে, সেখানে তার প্রকোপ, মোট আক্রান্তের সংখ্যা আক্রান্তের হার এবং মৃত্যুহার সবদিক থেকেই, বেশি।

Read more


আতঙ্ক একটা মানসিক অসুখের মতো। তার উপর সেটা যদি রাষ্ট্র অনুমোদিত এবং/অথবা প্রণোদিত আতঙ্ক হয়, তাহলে তো আর কথাই নেই। ভারতের মতো পিছিয়ে পড়া অশিক্ষিত-গরিষ্ঠ কুসংস্কারগ্রস্ত ধর্মীয় উন্মাদনা কবলস্থ নিম্নচেতন জনসাধারণের অধিকাংশের মধ্যে আতঙ্ক নামক মনোপীড়া ছড়িয়ে দেবার সুযোগ এবং ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা বিপুল। প্রশ্ন শুধু একটাই। সেই আতঙ্কের চাষ কীভাবে হবে। হেতুবাদ মেনে নিয়েই কারণের তুলনায় পরিণামের উপর বেশি জোর দিতে হবে। বলার সময় যেন চোখে এবং মুখে সিজারের আত্মা এসে ভর করে। আর পাশাপাশি যে আতঙ্কিত হচ্ছে না, তাকে তাল ঠুকে বেয়ারা, অতিবিজ্ঞানী, সবজান্তা, অতিবিপ্লবী, ইত্যাদি বলে গাল ঠুকতে হবে। সমস্ত প্রক্রিয়ার মধ্যে যাতে যুক্তিতর্ক সিঞ্চিত আলাপনের জায়গা একেবারে না থাকে। কাল্পনিক ও অমূলক একটা উদাহরণ দিয়ে এরকম বৃহদায়তন গণ-আতঙ্ক উৎপাদনের বিষয়টা বোঝানো যাক। পাঠকদের প্রতি অনুরোধ, এটি জুল ভার্ন ঘরানার কল্প রচনা হিসাবেই পড়বেন।

Read more


আমাদের মতো কেশ-শল্যবিদ্যায় পারদর্শী কূটকাচালিকদের মতে, আব্বাস সাহেব যেমন অবশ্যই সেকুলার নন, তেমনই তাঁকে এখনই মৌলবাদী বলে দাগিয়ে দেওয়াও ঠিক হচ্ছে না। এটা বোঝার জন্য রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ডক্টরেট হতে হয় না যে এই সেকুলার ফ্রন্টের মূল কাজ তৃণমূলের মুসলিম সমর্থক এবং/অথবা ভোটারকুলের মধ্যে খাবলা বসানো। যেটা বামপন্থার ঝাল মশলা দিয়ে এখনও সম্ভব হচ্ছে না, কেন না, এই সব বৃহৎ বামপন্থীরা অনেক দিন ধরেই বাঁদিকের ফুটপাত ধরে আর হাঁটছেন না।

Read more


গণ্যমান্য ভুবনজয়ী বিশেষজ্ঞরা বলছেন আমাদের দেশ খাদ্যে স্বনির্ভর, প্রয়োজনের তুলনায় তিন গুণ বেশি খাদ্যশস্য এফসিআইয়ের গুদামে পচে যাচ্ছে। অথচ গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স অনুযায়ী ১০৭টি দেশের মধ্যে ভারতের স্থান ৯৪, নেপাল, পাকিস্থান, বাংলাদেশেরও নীচে! এটা একটা প্রহেলিকা! মাননীয়রা কি জানেন না যে গুদামে খাদ্য ইঁদুরে খাচ্ছে এই কারণে যে বিপুল সংখ্যক মানুষের কাছে খাদ্য পৌঁছাছেই না। কিছুদিন আগে হয়েছে, ট্রাক্টর মিছিল, আজ চাক্কা জ্যাম, তাই ফিরে দেখা এই কৃষি আইন নিয়ে এবং কেন এই কৃষক বিদ্রোহ?

Read more


২৬ শে জানুয়ারীর ট্রাক্টর মিছিলের সময়ে লাল কেল্লায় যে পতাকা তোলা হয়েছিল, যা নিয়ে নরেন্দ্র মোদী তাঁর মন কি বাত অনুষ্ঠানে অবধি বলেছেন, তার পিছনে কি ঘটেছিল? কেন তার পরেই কৃষক আন্দোলনকে ভেঙে দেওয়ার চেষ্টা হল, আসল সত্যিটা কি ? সেটা জানা কি জরুরী নয়? কেন দীপ সিধুকে এখনো গ্রেপ্তার করা হল না? কেন সাংবাদিকদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে ? গুরপ্রীত ভাসির ফেসবুক পোস্টের থেকে নেওয়া এই লেখাটি।

Read more


বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষিতে নেতাজির ১২৫ তম জন্মজয়ন্তী নিয়ে যে রাজনীতি চলছে, সেই প্রসঙ্গে পুরোনো লেখা আবার প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠল। কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক কর্মসূচীর শেষতম ধাপ হিসেবে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের নামও নাকি নেতাজির নামে হবে, শোনা গেল৷ এমনিতে তাতে বর্তমান লেখকের আপত্তি কিছু নেই। কিন্তু কেন নেতাজিকে 'আপন' করতে চাইছে বিজেপি? তা কি পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচন জয়ের একটা প্রচেষ্টা নয়? বাঙালির মন জয় করা কি এত সহজ হবে? সর্বোপরি, বিজেপি-আরএসএস কি সুভাষচন্দ্রকে রাজনৈতিক ভাবে 'নিজের লোক' বলে আদৌ দাবি করতে পারে? ইতিহাস কী বলে?

Read more


নূতন কিছু সোশ্যাল-মিডিয়া এসে দাঁড়িয়েছে , কিছু দিন স্বাধীনতা দেবে , তারপর সেগুলোকেও রুদ্ধ করা হবে ,আবার আরো কিছু নতুন বেরোবে , এই দড়ি টানাটানির লড়াই চলবে। আর তার মধ্যে দিয়েই বিশ্বের মানুষকে ছিনিয়ে আনতে হবে মতামত ব্যক্ত করার এবং বিতর্কের আজাদী। আমরা মানুষের পক্ষের মতামত দিয়ে উড়িয়ে দেব মানুষ বিরোধিতার মতামতকে। ভারতের কৃষক আন্দোলনের ট্রেন্ডিং দেখিয়ে দেয় আমাদের এই রাস্তা আমাদের স্বপ্নের মনজিলে আমাদের পৌঁছে দেবেই , ওরাও প্রযুক্তি ব্যবহার করবে সেটাকে নিয়ন্ত্রণ করবার জন্যে, আমরাও করবো তাকে আজাদ করবার জন্যে। এটাই প্রযুক্তি ব্যবহারের দুলাইনের সংগ্রাম।

Read more


মানুষ আপাতত এটুকু জেনেই খুশী, যে কিছুদিনের মধ্যেই বিশ্ব, বিশেষত ভারতবর্ষ কোভিদ-১৯ মুক্ত হবে। ভ্যাকসিন আবিষ্কার এবং ফুলপ্রুফ হওয়ার প্রক্রিয়া দীর্ঘ সময় সাপেক্ষ, কারণ মানুষের শরীরের ওপর এর প্রয়োগের ঝুঁকি রয়েছে। সে প্রক্রিয়ার তোয়াক্কা না করেই দেশের বাজারে আসছে টিকা। আমরা নিরাপদ তো?

Read more


কৃষি ও কৃষকের উন্নতি যতটুকু সম্ভব, তা রিলিফ বা অনুদানের ব্যাপার নয়। তার জন্য কৃষিতে কৃষক-স্বার্থবাহী সংস্কার প্রয়োজন। কৃষি-উৎপাদন থেকে কৃষিপণ্যের বিপণন মায় কৃষকের ফসলের যথার্থ লাভজনক মূল্যের নিশ্চয়তা পর্যন্ত কৃষক-স্বার্থকে প্রাধান্যে রেখে প্রয়োজনীয় সংস্কার চাই।

Read more


বিজেপি যেন ধোয়া তুলসি পাতা। কোনও দুর্নীতি যেন তাদের স্পর্শ করে না। নরেন্দ্র মোদী, অমিত শা কিংবা ওদের দলের ছোট বড় মেজো নেতা কারণে অকারণে কংগ্রেস বা অন্য বিরোধী দলের নেতা-মন্ত্রীদের দুর্নীতি নিয়ে সোচ্চার হয়। অথচ বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলোতে চলছে অন্তহীন দুর্নীতি। তারই কিছু খবর এখানে দেওয়া হল।

Read more

by বিস্ময় বসু | 05 December, 2020 | 1 Comment(s) | 2850 | Tags : Corruption BJP TMC


মিম-এর ভোটপ্রাপ্তিতে দলটিকে বিজেপির বি টিম হিসেবে তুলে ধরার এক প্রচেষ্টা তথাকথিত ধর্মনিরপেক্ষ জাতপাতভিত্তিক শাসক দলগুলি শুরু করেছে। কিন্তু কেন মিম-এর উত্থান ঘটল, সে ব্যাপারে কোন বিশ্লেষণ নেই। এতাবৎকাল পর্যন্ত মিম-এর বিজেপির সঙ্গে হাত মেলানোর কোন ইতিহাস নেই। যেকোন রাজনৈতিক দলের নির্বাচনে লড়াই করার গণতান্ত্রিক অধিকার আছে।

Read more


এ হেন অরাজনৈতিক পার্টিজান তর্ক আসলে দক্ষিণপন্থী প্রবণতা। কথাটা যে সত্যি, বামপন্থীদের মধ্যেও যে দক্ষিণপন্থা ঢুকে পড়ছে, তার প্রমাণ কেরালা সরকারের পুলিশ আইনে নবতম সংশোধনী। ফেসবুক পোস্টের জন্য কারাবাস্ অথবা জরিমানা করার আইন যদি কোন বামপন্থী সরকার করে, তাহলে বিজেপির বিরুদ্ধে যারা, তাদের পায়ের তলার মাটি সরে যায়। অতএব কে কত বড় মার্কসবাদী, কে অতিবাম আর কে বুর্জোয়া দলে পরিণত হয়েছে --- সে তর্ক এখন থাক না। বামপন্থা মানুষের জন্য, মানুষ তো বামপন্থার জন্য নয়।

Read more

by প্রতীক | 27 November, 2020 | 0 Comment(s) | 1537 | Tags : Left Movement CPIM CPIML BJP TMC


আবারো একটি ঐতিহাসিক ভুল হতে চলেছে। শুধু নিজেরা ক্ষমতায় থাকার জন্যেই তৃণমুল বিজেপির বিরোধিতা করছে, কোনও পলিসি বা নীতির বিরোধিতা করছে না। বামেদের দায়িত্ব ছিল বিজেপিকে সর্বস্তরে বিরোধিতা করার, যাতে তারা কেন্দ্রের বিজেপির বিরুদ্ধে আন্দোলনে তৃণমূলের প্রতিযোগী হয়ে উঠতে পারে।

Read more


বাংলা ভাষায় 'দায়' বলে একটি শব্দ এখনও অভিধানে পাওয়া যায়। বাস্তবে তার ব্যবহার কতটা হয়, সে প্রশ্ন বিতর্কিত। ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচনের প্রাকমুহূর্তে বামপন্থীদের সেই দায়ের কথাটা বোধ হয় আরও একবার আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে ঝালাই করে নেওয়া উচিত।

Read more


লোকাল ট্রেন বন্ধ প্রায় ছ’মাস। নগর কেন্দ্রিক যাবতীয় রুজির উপায় বন্ধ। মফসসলের লক্ষ লক্ষ মানুষ চরম বিপদের মধ্যে। কিন্তু অতিমারীর এই অবরুদ্ধ সময়ে লোকাল ট্রেন কবে এবং কীভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চালানো যেতে পারে তা নিয়ে উচ্চবাচ্য করছে না রেল দফতর বা রাজ্য সরকার। এখানে তারই কিছু সুপারিশ। দ্বিতীয় পর্ব।

Read more


লোকাল ট্রেন বন্ধ প্রায় ছ’মাস। নগর কেন্দ্রিক যাবতীয় রুজির উপায় বন্ধ। মফসসলের লক্ষ লক্ষ মানুষ চরম বিপদের মধ্যে। কিন্তু অতিমারীর এই অবরুদ্ধ সময়ে লোকাল ট্রেন কবে এবং কীভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চালানো যেতে পারে তা নিয়ে উচ্চবাচ্য করছে না রেল দফতর বা রাজ্য সরকার। এখানে তারই কিছু সুপারিশ। প্রথম পর্ব।

Read more


যখন আমরা বড় কোম্পানির অধীনে চুক্তি চাষের বিরোধিতা করব, তখন আমাদের দেশজ কৃষির কথা, দেশের কৃষকদের কৃষি-নৈতিকতার কথা বলতে হবে। হারিয়ে যাওয়া কৃষি-সম্পদ পুনরুদ্ধারের কথা বলতে হবে। এখানেই আমাদের আত্মবিশ্বাস, এখানেই আত্মনির্ভরতা।

Read more


ভারতে শিক্ষা যৌথ তালিকার অন্তর্ভুক্ত। কিন্তু ক্রমাগত কেন্দ্রিকরণের মাধ্যমে কেন্দ্রিয় সরকার সমস্ত রাজ্যকেই কেন্দ্র আরোপিত শিক্ষানীতি গ্রহণে বাধ্য করেছে। ১৯৮৬ সালের শিক্ষানীতিও শিক্ষায় আঞ্চলিক ও স্থানীয় আকাঙ্খা ও বৈশিষ্ট্যকে বজায় রাখার জন্য রাজ্যের প্রয়োজনীয় ভূমিকাকে খর্বিত করেছিল। এই নীতিটি কেন্দ্রের একতরফা সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও যেটুকু যুক্তরাষ্ট্রিয় অবশেষ বজায় রয়েছে তাকে ধ্বংস করার দিকে আরেকটি জোরালো পদক্ষেপ।

Read more


Sustainable Development এর তত্ত্ব প্রচার করতে গিয়ে প্রমান হয়ে গেছে যে আসলে পরিবেশ ধ্বংসের কারন হচ্ছে সাম্রাজ্যবাদী অতি মুনাফার পেছনে ছোটা। তাই চাই নতুন এক গণশত্রু – এবং সাম্রাজ্যবাদ সৃষ্ট আজকের সেই গণশত্রুর নাম হল কোভিড ১৯।

Read more


চোখের সামনে আর যা যা হচ্ছে! সরকারী ক্ষেত্রগুলো জলের দরে সাম্রাজ্যবাদী সংস্থাগুলোর হাতে বিকিয়ে যাবে, সরকারী জনকল্যাণের কাজ বন্ধ হবে, শ্রমজীবি মানুষের অধিকার বলে কিছু থাকবে না, শ্রমজীবি মানুষের অধিকারের পক্ষে যারাই আওয়াজ তোলার চেষ্টা করবে তাদেরই কণ্ঠরোধ করা হবে, না পারলে পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া হবে, জনগণের একেকটা অংশকে বেনাগরিকিকরনের মধ্যে দিয়ে সব রকম রাষ্ট্রীয় সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হবে, জাতপাত, এবং ধর্মের ভিত্তিতে জনগণকে বিভাজিত, অবদমিত করে রাখা হবে।

Read more


ধীরে ধীরে মানুষের মনে ঘৃণার সঞ্চার হতে থাকে, আর ওঁরা আরও লাভবান হতেই থাকে। ওঁদের এখন দরকার হোয়াটস্যাপ পে, সেই কারণেই ফেসবুক এখন বিজেপিকে চটাবে না, আর আমরা ভেবেই চলবো, আমরা ফেসবুকে লিখে মানুষকে সচেতন করবো! কিন্তু তা কি কখনও সম্ভব? ওঁদের মাঠে নেমে, ওঁদেরই বল নিয়ে, ওঁদেরই রেফারি, এবং দর্শকের সামনে ওঁদের কি হারানো সম্ভব ?

Read more


নতুন শিক্ষানীতির ছত্রে ছত্রে আর্থ-সামাজিকভাবে অনগ্রসর শ্রেণির উচ্চশিক্ষায় অংশীদারিত্বের কথা আছে, কিন্তু তার জন্য কোনো সুনির্দিষ্ট আর্থিক দিশানির্দেশ নেই। শুধু ‘ফ্রি-শিপ’ আর ‘স্কলারশিপের’ কথা আছে। পাবলিক ইউনিভার্সিটির মূলে একটি সমতার ধারণা কাজ করে – উচ্চমানের শিক্ষায় সকলের সমান অধিকার এবং সেই অধিকার নিশ্চিত করা কল্যাণকারী রাষ্ট্রের অন্যতম দায়িত্ব। যার ক্ষমতা আছে তাকে শিক্ষা কিনতে বলা আর যার নেই তাকে বৃত্তির নামে আলাদা করে চিহ্নিত করা শিক্ষাক্ষেত্রে বিভেদের বীজ বপন করে।

Read more


শিক্ষার লক্ষ্য মানুষকে সমমর্যাদার জীবন গড়ে দেওয়া। শিক্ষিত সেই মানুষটি সমাজ, পরিবার ও দেশের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করবে। সেই জন্য চাই তার আর্থিক সংস্থান। ৩৪ বছর পরে নেওয়া শিক্ষানীতি মেয়েদের সেই লক্ষ্যপূরণে কতটা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ সে প্রশ্ন থেকেই গেল।

Read more


এখন গঞ্জ এলাকার স্কুলশিক্ষিকা স্ত্রীর কাছেও শুনি, অনেক ছাত্রীর মেধা থাকা সত্ত্বেও বিয়ে হয়ে যায় মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দেওয়ার আগেই। বেশি লেখাপড়া শিখলে পাত্র পাওয়া মুশকিল হবে, বরপণের অঙ্কটা তখন নাগালের বাইরে চলে যাবে। অনেক ছাত্রী স্কুলে এসে থেকে কেবল জানতে চায় কখন মিড ডে মিল পাওয়া যাবে, কারণ বাড়ি থেকে ভরপেট ভাত খেয়ে আসার সৌভাগ্য তাদের হয় না। এই আমাদের দেশ। এ দেশের শিক্ষানীতি নিয়ে আমরা কথা বলছি।

Read more


সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চা শুরু হয়েছে, মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তরপত্রে পরীক্ষার্থীর নাম থাকার সুযোগে একশ্রেণির শিক্ষকরা ধর্মীয় সংখ্যালঘু, আদিবাসী ও দলিত ছাত্র-ছাত্রীদের নম্বর দেওয়ায় বৈষম্য করছেন। দাবি উঠেছে, এটা থামাতে উত্তরপত্রে নাম না লিখে শুধু রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর লেখার নিয়ম করা দরকার। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল থেকেও একথা বলা হচ্ছে।

Read more


একজন মানুষ যখন গুগলে কিছু জিনিস খোঁজেন, সেটা হয়ে যায় সেই মানুষটির ব্যবহারের মাপকাঠি। এরপর সেই ব্যবহার দিয়ে মানুষটিকে চেনা হয়, ঠিক একই রকম ভাবে অ্যামাজন বা ফেসবুকে একজন মানুষ যা যা করেন ঠিক সেইরকম ভাবেই তাঁর পছন্দ অপছন্দগুলো জানা হয়ে যায় ওই কোম্পানি বা কর্পোরেটদের, সেইমতো পরবর্তীতে নিয়ন্ত্রণ করা হয় মানুষদের।

Read more


বর্তমান সময়ে নভেল করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন এর দিকে তাকিয়ে বসে আছে সারা বিশ্ব। কারণ এই অবস্থা আর একটু বেশিদিন চললে বিশ্ব অর্থনীতি একেবারে মুখ থুবড়ে পড়বে। ঋণ-নির্ভর অর্থনীতি চাঙ্গা থাকে বাজার চালু থাকলে।

Read more


যদি কোভিড পজিটিভ হয়, আমরা কি খুব সহজে সরকারি বা বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হতে পারবো? বা তাদের পরিষেবা পাবো? রাজনীতিবিদদের জন্যেও রাষ্ট্র নিজ দায়িত্বে তাদের সুস্থ করার প্রচেষ্টা নেয়। কিন্তু আমাদের ক্ষেত্রে তা ঠিক কতটা? কেন ৭৭ বছরের অমিতাভ বচ্চন চিকিৎসা পায় আর সমবয়সী কবি ভারভারা রাওকে জেল বন্দী রাখা হয়?

Read more


শ্যামাপ্রসাদ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থাকাকালীন ছাত্রদের সামরিক ট্রেনিং দেওয়া এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাদিবসে কুচকাওয়াচ প্রদর্শন করার রীতি চালু করা হয়েছিল। শ্যামাপ্রসাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে ছাত্রদের য়ুনিঅন জ্যাক অর্থাৎ ব্রিটিশ পতাকাকে কুচকাওয়াচের সময় কুর্নিশ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন! আজ ৬ জুলাই শ্যামাপ্রসাদের জন্মদিন। বিজেপি শ্যামা-আবেগ সঞ্চারিত করতে পথে নেমে পড়েছে।

Read more


পরিবেশ সম্পর্কিত নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে ইনক্লুসিভ মডেলের প্রয়োজন, পরিবেশ সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করা আদিবাসী জনগোষ্ঠী, বনবাসী, কৃষক, মৎসজীবি, মহিলা সহ সমস্ত প্রান্তিক মানুষেরা যেখানে গুরুত্ব পাবেন। অথচ বাস্তবে বারবার 'উন্নয়নের' নামে এদেরকেই জল জঙ্গল জমি থেকে উৎখাত করা হয়ে চলেছে।

Read more


আমরা অনেক সময়েই যে কাজটুকু করে ফেলা যেতে পারে এবং করে ফেললে একশো শতাংশ না হোক অনেকটা উপকার হওয়া সম্ভব – সেই কাজটুকুও তৎপরতার সঙ্গে করে উঠি না। এমন কাজ কমই আছে যা আমাদের সব পেয়েছির দেশে পৌঁছে দেবে, বা সব সমস্যার সমাধান করে দেবে, কোনও প্রশ্ন, সংশয়ের জায়গাই থাকবে না। ফলে সর্বরোগহর ওষুধের অপেক্ষায় বসে না থেকে এই মুহূর্তে যা যা করা সম্ভব, সীমাবদ্ধ ও আংশিক হলেও সেটাই করতে হবে।

Read more


কোনো সন্দেহ নেই বর্তমান বামপন্থী কমিউনিস্টরা বিভিন্ন অঞ্চলে ত্রাণ নিয়ে যাচ্ছেন নির্দিষ্ট একটা রণকৌশল নিয়েই, নতুন যায়গায় গিয়ে মানুষের মধ্যে বিশ্বাস অর্জন ও সংগঠন বাড়ানোর উদ্দেশ্যে - পরবর্তী কালে এই যোগাযোগগুলি কাজে আসবে। কিসে কাজে আসবে সেটাও প্রশ্ন, আগামী বিধানসভা ভোটে নাকি পঞ্চায়েত ইলেকশনে নাকি সংগ্রামী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে? এই বিপর্যয়কালে দাতা গ্রহীতার সম্পর্কের মধ্যে দিয়ে কি মানুষের সংগ্রামী চেতনার উন্মেষ হয়?

Read more


আমার রাস্তা হচ্ছে মানুষ তৈরি করা। মানুষ, যে শুধুমাত্র আবেগে নয়, বুদ্ধি দিয়েও কাজ করবেন। কাজে কর্মে প্রফেশনাল হবেন। এইরকম মাথা খাওয়ার ও তৈরির আঁতুড়ঘর দরকার। কলেজের ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে দ্বন্দ্বে আলোচনায় যাওয়া দরকার – সময় তাঁদের সামনেই কঠিন। শিক্ষকদের মনে করানো দরকার তাঁদের হৃদয়ের সঠিক অবস্থান আসলে বাঁ দিকের বুক পকেটে নয়, বরং আর একটু মাঝামাঝি।

Read more


As cases started surfacing the central government started declaring hotspots and various coloured zones with very little back up public health initiative. The country failed to come up with with any plan for mass screening of the hotspots due to lack of serology kits and only had to depend on the costly and time-taking RT-PCR testing of those who are either quarantined because of foreign travel or for having a contact history with confirmed covid cases

Read more

by Dr Anindya Sen | 11 May, 2020 | 0 Comment(s) | 1535 | Tags : corona lockdown


সাইবার জগতে বিষাক্ত পৌরুষ বা টক্সিক ম্যাসকুলিনিটির প্রকাশ নতুন নয়, বিরলও নয়। বরং যৌন নির্যাতনের নবতম অবতার সেটিই। এতদসত্বেও সাউথ দিল্লির স্কুলছাত্রদের গোপন ইন্সটাগ্রাম গ্রুপ সকলকে হতবাক করেছে। এই বিস্ময়ের কারণ সম্ভবত দুটি।

Read more


বাংলাভাষা নিয়ে এপারের বাঙালির সচেতনতা যেমন কম তেমনি বাংলা উইকিপিডিয়া নিয়েও। বাংলাদেশের হাত ধরে বাংলা অনলাইন বিশ্বকোষের জন্ম হয় ২০০৪ সালে। শুধু তাই নয় উইকিপিডিয়ায় বাংলা নিবন্ধ লেখার কাজেও তাঁরা এগিয়ে। তবে ভলেন্টিয়ারের সংখ্যা কম হওয়ায় অন্যান্য ভাষার তুলনায় বাংলা নিবন্ধ সংখ্যা এখনও অনেক কম। বেশি সংখ্যক ভলেন্টিয়ারকে এগিয়ে আসতে হবে তাহলেই বাংলা অনলাইন বিশ্বকোষ অন্যান্য ভাষার সম মর্যাদা পেতে পারবে।

Read more

by গোপা দাস | 05 May, 2020 | 2 Comment(s) | 3088 | Tags : wikipedia bengali


বেশ কয়েকটা ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছিলেন ইরফান খান তাঁর অভিনেতা জীবনে, তার মধ্যে আং লি'র লাইফ অফ পাই বা ড্যানি বয়েলের স্লামডগ মিলিয়নেয়ার তাঁকে আন্তর্জাতিক পরিচিতি দিয়েছে, তবু ইরফান খান বলতেই আমার মনে ভেসে ওঠে বিশাল ভরদ্বাজের মকবুল মিয়া'র চেহারা।

Read more

by মানস ঘোষ | 01 May, 2020 | 0 Comment(s) | 1923 | Tags : irfan khan


আমাদের দেশে ফি বছর যক্ষায় ৪ লক্ষ ৪০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। ২০১৯ সালে মৃত্যু হয়েছে আট লক্ষেরও বেশি নবজাতকের। সে তুলনায় করোনায় মৃতের সংখ্যা কত? কিন্তু তার জন্য কত দাম দিতে হবে ভারতবাসীকে?

Read more


আর্টিকেল ১৪ বলে একটি ওয়েব পত্রিকাতে এই লেখাটি বেড়িয়েছে কিছু দিন আগে, যেখানে প্রশ্ন করা হয়েছে লকডাউন কি আদৌ জরুরী ছিল? আর কোনও উপায় কি ছিল না? সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য আর কি করণীয় ছিল আইসিএমআর কি বলেছে? গবেষণা কি বলেছে? লিখেছেন নীতিন শেঠী। আমরা সহমনের পক্ষ থেকেও একই প্রশ্ন রাখলাম।

Read more


করোনা ভাইরাস থেকে দুর্ভিক্ষে বেশি মানুষ মারা যাবেন। তাই এই লকডাউন থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বেরোনো দরকার এবং তার জন্য দরকার একটি সুস্পষ্ট পরিকল্পনা যার মূলে থাকবে অনেক বেশি সংখ্যক এবং সঠিকভাবে করা পরীক্ষা যার দ্বারা সংক্রমিত মানুষদের দ্রুত চিহ্নিত করে আলাদা করার ব্যবস্থা করা যাবে।

Read more


যারা আধার বানিয়েছিল, সেই নন্দন নিলেকনি কিন্তু এই আরোগ্য সেতুর পিছনে অন্যতম মাথা। তাঁরাই ভারতবর্ষে ওই ‘বাহন’ বলে মোবাইল অ্যাপলিকেশন তৈরি করেছিল, যার সাহায্যে দিল্লি দাঙ্গার মতো ঘটনায় বেশ কিছু গাড়ি পোড়ানো হয়েছিল বলে জানা গেছে। তাহলে আসলে কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্য একটি কেন্দ্রীভুত তথ্য ভান্ডার বানানো যার মধ্যে দিয়ে সে শুধু নাগরিকদের নজরদারি করবে আর কিছু নয়।

Read more


পাকিস্তানে ঘৃণা করতে শেখানো হয় একটি নামকে – চার্লস ডারউইন। স্কুলশিক্ষক এবং ইউনিভার্সিটি প্রফেসর, যাদের কাজ ডারউইনের বিবর্তনবাদ পড়ানো, তাঁরা হয় এই বিষয়টিকে বাদ দিয়ে যান অথবা অবজ্ঞাভরে বিষয়টিকে খানিক মোলায়েম করে পরিবেশন করেন। করোনার সঙ্গে কি সম্পর্ক তাঁর?

Read more


বর্তমানের এই সংকট-মুহূর্তে, আর ট্রাম্পের মতো এক গুণ্ডার ধমকির মধ্যেও, বেঙ্গল কেমিক্যালের মতো একটি 'নন-প্রায়োটিরিটি সেক্টরের’ সরকারি সংস্থাও ১০ লাখ হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট সরবরাহ করার ক্ষমতা রাখে। (তথ্যসূত্র – লিংকঃ 8) আমরা থালি বাজাই আর বাতি জ্বালাতে থাকি!

Read more


সাম্প্রতিককালে ধর্মীয় রীতি-আচার তার দস্তুর হারিয়ে গণউন্মাদনার চেহারা নিয়েছে। ধর্মীয় সংস্কৃতির বহু কিছু আরোপিত মতান্ধতার বিকার ও অসহিষ্ঞুতা প্রদর্শনের বিষয়বস্তুতে পরিণত হয়েছে। মানুষের সংস্কার-প্রবণতার চোরাপথে ইতিহাস-সাক্ষী কুসংস্কারের নবায়ন হচ্ছে। এসবকিছু সংখ্যাগুরুর ধর্মাচরণে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ রাজনৈতিক যোগসাজশ ও রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতার পরিণাম।

Read more


অতিমারী, মহামারী, মড়ক, মারী কত নামই যে হয় এই সব ভয়াল সংক্রমণের! নামগুলো এমন কেন? সব কি মরণের ইঙ্গিত? শব্দ বিশ্লেষণে কী উঠে আসে? পৌরাণিক আমলেও কি এমন ভয়াল ছোঁয়াচে রোগ ছিল? মহামারী বা অতিমারী নিয়ে প্রাচীন সাহিত্য কী বলে?

Read more


কলকাতায় দাদা-কালচারের মধ্যে একটি সর্বাঙ্গীন মেয়েদের থিয়েটার দল চলে, যার নাম 'সমূহ'। তাঁদেরই একটি প্রযোজনা অথ হিড়িম্বা কথা

Read more


বিজেপির তরফ থেকে যে প্রচার চালানো হচ্ছে, সেই প্রচারপত্রে একটি ফোন নম্বর থাকছে। বলা হচ্ছে ওই নম্বরে ফোন করলে নাগরিকত্বের কার্ড দেওয়া হবে। একবার ভুল করেও যদি ওই নম্বরে কেউ ফোন করে ফেলেন তাহলেই আসল খেলা শুরু হবে। আজকের সময়ে ফোন নম্বর হচ্ছে একটি মারাত্মক মাধ্যম। আর সেটাকেই ওঁরা ব্যবহার করছে।

Read more


ইদানীং নাকি সবাই ভুত দেখছে, কোথায় না ‘জি বাংলা’য়। দাদাগিরিতে। দাদাগিরির মতো অনুষ্ঠানে কেন সৌরভ গাঙ্গুলীদের মতো লোকদের আনা হয় বলুন তো? সেই নিয়ে কিছু কথা

Read more


অমর চিত্র কথার প্রণেতা অনন্ত পাইয়ের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে ভারতরত্ন পুরস্কারপ্রাপক হিসেবে।কিন্তু কী তাঁর অবদান ? অমর চিত্র কথার মাধ্যমে পুরুষতন্ত্র, বর্ণপ্রথা, জাতিভেদ, অলৌকিকতা প্রচার এবং হিন্দুত্ববাদ আর ভারতীয় জাতীয়তাবাদকে অভিন্ন ভাবে দেখানোর কাজ অক্লান্তভাবে তিনি করে চলেছেন। তারই কি পুরস্কার ?

Read more


'তিতুমীর' নাটকটিতে বস্তুত দর্শক প্রত্যক্ষভাবে অংশগ্রহণ করে। অংশগ্রহণ না করে তার উপায় নেই। কেননা অডিটোরিয়ামের প্রতিটি কোণ থেকে নাটকটি সঞ্চালিত হয়। কখনো উপর থেকে মই দিয়ে নিচে নামা, আবার উপরে ওঠা এই নিয়ে লেখা।

Read more


যারা এই তথ্যের অধিকার নিয়ে কাজ করেন, তাঁরাও আশঙ্কা করছেন যে আসলে ঘুরিয়ে যে নাগরিকেরা এই প্রশ্ন করাটাকে উৎসাহিত করেন এই “তথ্য জানার অধিকার আইন সংশোধন” সেই নাগরিকদেরই ডানা ছাঁটার চক্রান্ত নয় তো ?

Read more


এই মুহূর্তে সারা পৃথিবীর বহু মানুষ ফেসবুকের একটি ফেসঅ্যাপ চ্যালেঞ্জে মগ্ন। সকলে নিজের ছবি দিয়ে বৃদ্ধ হলে কেমন লাগবে বা কোনও পুরুষকে মহিলার মতো দেখতে হলে বা উল্টোটা হলে কেমন লাগবে সেই ‘খেলাতে’ ব্যস্ত? কিন্তু এটা কি শুধুমাত্র একটা ‘খেলা’ নাকি এটার পিছনে অন্য কিছু আছে?

Read more


মনে রাখা দরকার-- সুন্দরের কিছু বাস্তবতথ্যমূলক দিকও থাকে। তা দেয় পরিবেশ। পরিবেশকে লঙ্ঘন করে নদীতে বাঁধ, নির্বিচারে জঙ্গল সাফ, কারখানা ও হাসপাতালের মারাত্মক বর্জ্য ফেলা হয় নদীতে। মানুষ এমনিতেই পরিবেশের দফারফা করে চলেছে নিরন্তর।

Read more


যে রুগীর মৃত্যু ও মরদেহকে কেন্দ্র করে ঘটে যাওয়া সংঘাত থেকে ডাক্তারদের আন্দোলন স্তব্ধ করে দেয় এরাজ্যের চিকিৎসা পরিষেবা তাঁর পরিবারের সাথে সহমনের টিম দেখা করে এসে লিখেছেন টিমের অন্যতম সুদেষ্ণা দত্ত।

Read more


দেশের শাসক দলের ইস্তাহারের মূল বক্তব্যই জাতীয়তাবোধ। পাশাপাশি তাঁদের দাবি, দেশকে তাঁরা অর্থনৈতিক ভাবে সামনের সারিতে পৌঁছে দেবেন এই শতকের মাঝামাঝি। পুরনো কথা আবার বাণীর মতো এসেছে, কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করে দেওয়া হবে ২০২২ সালের মধ্যে। এই সব দাবিদাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সুমন সেনগুপ্ত।

Read more


অনবদ্য অভিনয়ে চিত্রশিল্পী ভিনসেন্ট ভ্যান গগকে জীবন্ত করে তুলেছেন অঞ্জন দত্ত। স্বপ্ন সন্ধানীর প্রযোজনা ‘তারায় তারায়’ দেখে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানালেন নাট্যকর্মী অসিতা সেন।

Read more